আম্পায়ারদের চরম ভুল : এক ওভারে ৭ বল!

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:০৭ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০১৭

সবারই জানা কথা, ৬ বলে হয় এক ওভার। তবে ‘নো’ কিংবা ‘ওয়াইড’ ডেলিভারি হলে এক ওভারে সাত, আট, নয় কিংবা ১০-১২ বলও হয়ে যেতে পারে। ৫০ ওভারের একদিনের ম্যাচ আর ২০ ওভারের ছোট্ট ফরম্যাটে ১না কিংবা ওয়াইডের কারণে এক ওভারে ছয়ের অধিক বল হয় অহরহ।

কিন্তু ‘নো’ও হয়নি, আবার কোরো বোলার ছয় বলের মধ্যে একটি ওয়াইডও করেননি; কিন্তু এক ওভারে সাতটি বৈধ বল! ক্রিকেটের ইতিহাসে কেউ কখনও দেখেছে কি-না সন্দেহ। যে কেউ বলবেন, তা দেখবো কি করে- সেটা কীভাবে সম্ভব?

নো আর ওয়াইড বল ছাড়া সাত বলে কখনো কি ওভার হয়? তা হয়তো হয় না। তবে আজ হয়েছে। নাহ, কোনো পাড়ার ম্যাচ কিংবা গলির ক্রিকেটে নয়। একেবারে বিপিএলে! হ্যাঁ রংপুর রাইডার্স আর সিলেট সিক্সার্সের ম্যাচে সাত বলে ওভার দিয়েছেন আম্পায়ার মাহফুজুর রহমান ও শ্রীলঙ্কার রানমোর মার্টিনেজ। আর এ ম্যাচে টিভি আম্পায়ার ছিলেন গাজী সোহেল।

এ তিন আম্পায়ারের চোখের সামনেই ঘটেছে এ বিরল ঘটনা। তবে ওই সময় বোলিং এন্ডে আম্পায়ার ছিলেন মাহফুজুর রহমান। রংপুর রাইডার্স ইনিংসের ১৬ নম্বর ওভারে সিলেট সিক্সার্সের মিডিয়াম পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি ছয় বলের বদলে সাত বলে ওভার করেছেন।

দুই ফিল্ড আম্পায়ারের সঙ্গে টিভি আম্পায়ারও তা খেয়াল করেননি। তাই খেলা শেষে সিলেট অধিনায়ক নাসির ও অন্যান্য ক্রিকেটারদের আম্পায়ারের সঙ্গে কথা বলতে দেখা গেছে। ক্রিকইনফোর বল টু বল কমেন্ট্রিতেও তা নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এদিকে সিলেট সিক্সার্স ম্যানেজমেন্ট খেলা শেষে ম্যাচ রেফারির কাছেও এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক অভিযোগও জানিয়েছেন। সিলেটের মিডিয়া ম্যানেজার তামজিদুল ইসলাম জাগো নিউজের কাছে এ বিষয়টি তুলে ধরে বলেন, ‘এত বড় ভুল আম্পায়াররা করেন কি করে? এ ভুলের দায় কার?’

আইএইচএস/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :