ভারতকে ‘বাড়তি সুবিধা’ দেয়ায় চটেছেন পাকিস্তান অধিনায়ক

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩৬ পিএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

আরব আমিরাতে চলতি এশিয়া কাপের উদ্ভট ও অসামঞ্জস্যপূর্ণ সূচির কারণে সমালোচনা হয়েছে বিস্তর। অংশগ্রহণকারী দলগুলোর মধ্যে দেখা দিয়েছে বাড়তি ব্যস্ততা ও অতিরিক্ত ভ্রমণের ক্লান্তি। তবু এতসবের মধ্যে ভারতীয় ক্রিকেট দলের জন্য ‘বাড়তি সুবিধা’ দিয়ে রেখেছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল।

গ্রুপ পর্ব শেষে টুর্নামেন্টের অন্য দলগুলো যেখানে নিজেদের সুপার ফোরের ম্যাচগুলো খেলবে আবুধাবি ও দুবাইয়ে ভ্রমণ করে। সেখানে ভারতের সবগুলো ম্যাচই রাখা হয়েছে দুবাইয়ের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এমনকি গ্রুপে নিজেদের দুই ম্যাচও দুবাইতেই খেলছে ভারত।

প্রাথমিকভাবে প্রকাশিত সূচিতে ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দলের জন্য সুযোগ ছিলো দুবাইতেই সব ম্যাচ খেলার। কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের আপত্তির মুখে ভারতের সব ম্যাচ দিয়ে দেয়া হয় দুবাইতে। যার মানে দাঁড়ায় ‘এ’ গ্রুপ থেকে ভারত ব্যতীত অন্য দল অর্থাৎ পাকিস্তান চ্যাম্পিয়ন হলেও তাদের খেলতে হবে আবুধাবি-দুবাই ভ্রমণ করেই।

অংশগ্রহণকারী অন্য দলগুলো এ ব্যাপারটি হালকাভাবে নিলেও ছেড়ে কথা বলেননি পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। বুধবার ভারতের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে সূচির এই গোলমালের বিষয়ে কথা বলেছেন খোলাখুলি। কেননা ভারতকে হারিয়ে তার দল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলেও যে সুপার ফোরে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলতে যেতে হবে আবুধাবিতে।

দুবাই থেকে আবুধাবির দুরত্ব খুব বেশি, ভ্রমণটা দেড় ঘণ্টার। কিন্তু দুই ম্যাচের মধ্যে বিরতি মাত্র একদিনের। সেই বিরতিতেও পাওয়া যাবে না বিশ্রাম, করতে হবে ভ্রমণ। একারণেই চটেছেন পাকিস্তান অধিনায়ক।

ম্যাচের আগের দিনের সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আপনি যদি সূচির কথা বলেন তাহলে দেখুন, ভারত যদি শেষ ম্যাচে হেরেও যায় তবুও এখানেই (দুবাই) থেকে যাবে। বিমান ভ্রমণ অতি অবশ্যই একটা বড় বিষয়। আপনি যদি এই আবহাওয়া, অত্যধিক গরমের ভেতরে ম্যাচের মধ্যেও দেড়-দুই ঘণ্টার ভ্রমণ করেন, তাহলে ব্যাপারটা আর সহজ থাকে না। আপনি ম্যাচে মনোযোগ দেবেন নাকি ভ্রমণ ক্লান্তি দূর করবেন? আমার মনে হয় এটা সব দলের জন্যই সমান থাকা উচিৎ ছিল। শুধু ভারত বা পাকিস্তানের জন্য নয়। যারা আবুধাবিতে খেলবে তাদের সব ম্যাচ হবে আবুধাবিতেই, যারা দুবাইতে খেলবে তাদেরটা দুবাইতে। আমি জানি না এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল কিভাবে এ সূচি করলো।’

উদ্ভট সূচির ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করা পাকিস্তান অধিনায়ক কথা বলেন বুধবারের ম্যাচের ব্যাপারেও। দুই দলের সবশেষ দেখায় ভারতকে ১৮০ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল পাকিস্তান। সেই ম্যাচ থেকে অনুপ্রেরণা নেয়ার ব্যাপারে পাকিস্তান অধিনায়ক বলেন, ‘চ্যাম্পিয়নস ট্রফি এখন ইতিহাস। সে ম্যাচ নিয়ে ভেবে লাভ নেই। অবশ্যই আমাদের জন্য দারুণ জয় ছিল। সে ম্যাচের স্মৃতি সবসময় আমাদের সাথে থাকবে। কিন্তু এটা নতুন ম্যাচ, নতুন টুর্নামেন্ট, পরিস্থিতিও বদলে গেছে। আমরা জয়ের ধারায় আছি, এটা ধরে রাখতে চাই।’

এসএএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :