অতীত ভুলে ‘দ্বিতীয় জীবন’ শুরু সাব্বিরের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫২ এএম, ২৫ জানুয়ারি ২০১৯

মাঠ ও মাঠের বাইরের শৃঙ্খলাজনিত কারণে নিষেধাজ্ঞা ছিলো ছয় মাস, যা শেষ হওয়ার কথা ছিলো মার্চ মাসের প্রথম দিন। কিন্তু এর আগেই তাকে নিয়ে নেয়া হয়েছে ফেব্রুয়ারিতে হতে যাওয়া নিউজিল্যান্ড সফরের ওয়ানডে দলে। কতটা ঠিক হলো এমন সিদ্ধান্ত? আদৌ কি ন্যায়সঙ্গত হলো এটা?

বাংলাদেশের ক্রিকেট পাড়ায় এখন এমনই সংলাপ সবার মুখে মুখে। নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ কমিয়ে কেনোই বা তাকে নেয়া হলো স্কোয়াডে এমন প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত সবাই। এসব প্রশ্নের স্বপক্ষে নিজেদের যুক্তি ও বিশ্লেষণ জানিয়েছে টিম ম্যানেজম্যান্ট, বিসিবি, এমনকি অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা নিজেও।

কিন্তু যাকে নিয়ে এতো আলোচনা-সমালোচনা সেই সাব্বির রহমান নিজে কি ভাবছেন এ ব্যাপারে? দুই দফায় বিসিবির নিষেধাজ্ঞা পাওয়া এ ক্রিকেটার সত্যিই কি বদলে গিয়েছেন বা যাচ্ছেন? এ প্রশ্নের উত্তর হয়তো সময়ই দিতে পারবে সঠিকভাবে। তবে সাব্বির নিজে মনে করছেন এখন আর অতীত নিয়ে ভাবার সুযোগ নেই তার সামনে।

তবে তিনি খেয়াল রাখবেন যেনো ভবিষ্যতে আর অতীতের কোনো নেতিবাচক ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয়। বৃহস্পতিবার বিপিএলের ম্যাচ খেলতে নিজ দলের সঙ্গে চট্টগ্রাম গিয়ে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন সাব্বির। সেখানেই শোনান নিজের বদলে যাওয়ার সংকল্পের কথা।

সাব্বির বলেন, ‘অতীত আর মনে করতে চাই না। তবে ভবিষ্যতে যেন তেমন কিছু না হয় সেদিকে খেয়াল রাখব। এটা আমার জন্য দ্বিতীয় জীবন বলা যায়। এবার প্রথম ম্যাচটা যখন খেলব, বাংলাদেশ দলে আমার দ্বিতীয় অভিষেক হবে। চেষ্টা করব এখান থেকে ভালো কিছু করার। আগের সাব্বির যেভাবে খেলেছে, সেভাবে নিজেকে ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করব। কখনও ব্যর্থ হলেও নিজের উপর বিশ্বাস রাখব এবং টিম ম্যানেজমেন্ট যা চায়, তাই করব।’

এসময় সাব্বির জানান নিষেধাজ্ঞা কাটানোর সময়টা অনুতাপে পুড়েছেন, দগ্ধ হয়েছেন অনুশোচনায়। সেই অনুশোচনা থেকেই এবার জাতীয় দলে ভালো কিছু করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ তিনি।

‘মাঝের সময়টায় নিজের বোধ আর অনুভূতির কাছেই বারবার দগ্ধ হচ্ছিলাম। কাউকে বলতেও পারছিলাম না। একই সঙ্গে চেষ্টা করছিলাম বিপিএলে যদি ভাল কিছু করতে পারি, সুযোগ থাকবে জাতীয় দলে ফেরার। দেখা যাক জাতীয় দলে ভাল কিছু করতে পারি কি-না’ - বলেন সাব্বির।

একইসঙ্গে তার দুঃসময়ে পাশে থাকার জন্য ভক্ত-শুভাকাঙ্খী এবং পুনরায় আস্থা রাখার জন্য বিসিবিকে ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি সাব্বির, ‘বিসিবিকে অসংখ্য ধন্যবাদ আমার উপর আস্থা রাখার জন্য এবং সাহায্য করার জন্য। আবারও ধন্যবাদ সবাইকে। আমার ফ্যান-ফলোয়ার যারা আছেন, যারা সাপোর্ট করে যাচ্ছেন, চেষ্টা করব তাদের সম্মান রাখার জন্য এবং নিজের মান-সম্মান রেখে খেলার জন্য।’

এসএএস/এমকেএইচ