দ্বিতীয় দিনেও টিকিট জটিলতা, খেলাই দেখতে পারেননি দর্শকরা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১০ এএম, ০১ জুন ২০১৯

বিশ্বকাপের শুরুতেই কালো দাগ বসতে শুরু করেছে আয়োজক দেশ ইংল্যান্ডের গায়ে। টুর্নামেন্ট শুরুর দুইদিনই টিকিট বিষয়ক ঝামেলায় পড়তে হয়েছে দর্শকদের। বৃহস্পতিবার আসরের উদ্বোধনী দিনে স্টেডিয়ামের গেটে ভিড় লেগে যাওয়ায় ম্যাচের প্রথম অংশ দেখতে পারেননি অনেক দর্শক।

শুক্রবারের ঘটনা ছাড়িয়ে গেছে প্রথম দিনকেও। টিকিট প্রসেসিং ব্যবস্থায় ত্রুটি দেখায় বেশ কিছু দর্শক একদমই দেখতে পারেননি পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ। এতে অবশ্য আইসিসির পাশাপাশি দায় রয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দলেরও।

ট্রেন্টব্রিজে পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচটির স্থায়িত্বকাল ছিলো দুই ঘণ্টার কিছু বেশি সময়। ম্যাচে পাকিস্তান অলআউট হয় ২১.৪ ওভারে ১০৫ রান করে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ জিতে নেয় মাত্র ১৩.৪ ওভারেই। সবমিলিয়ে মাত্র আড়াই ঘণ্টার মতো লেগেছে পুরো ম্যাচ শেষ হতে।

ওদিকে এত অল্প সময়ে যখন শেষের পথে পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ, তখনো অনেক দর্শক দাঁড়িয়ে গেটের বাইরে, নিজেদের টিকিট সংগ্রহ করতে। কয়েকজন ভাগ্যবান দর্শক অল্প সময়েই টিকিট পেয়ে যান। তারাও মিস করেন ম্যাচের প্রথম অংশ।

বাকি দর্শকদের টিকিট পেতেই লেগে যায় দুই ঘণ্টার বেশি সময়। এর পুরো দায় নিজেদের কাঁধে নিয়েছে আইসিসি। কারণ তাদের অভ্যন্তরীণ সমস্যার কারণে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক দর্শককে বলা হয়েছিল স্টেডিয়াম গেট থেকে টিকিট সংগ্রহ করতে।

ticket

কিন্তু যখন দর্শকরা গেটে যান, তখন আইসিসি সবাইকে যথাসময়ে টিকিট দিতে ব্যর্থ হয়। ওদিকে মাত্র ৩৫.২ ওভার খেলা হওয়া ম্যাচটিও শেষ হয়ে যায় দর্শকরা টিকিট পাওয়ার আগেই। ফলে রাগে ফুঁসতে দেখা যায় সেসব দর্শকদের।

এমন অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি দেখা দেয়ায় ক্ষমা চেয়েছে আইসিসি। শুধু ক্ষমা চেয়েই থামেনি তারা, সেসব দর্শকদের টিকিটের অর্থ ফেরত দেয়ার কথাও জানিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

বিশ্বকাপের মহাব্যবস্থাপক স্টিভ এলওয়ার্থি এ বিষয়ে বলেন, ‘আজকে (শুক্রবার) টিকিটজনিত ঝামেলায় যেসব দর্শক আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের সবার কাছে আমরা ক্ষমা চাচ্ছি। আমরা ১২০টি দেশে প্রায় ৭ লাখ টিকিট পৌঁছে দিয়েছি। কিন্তু বেশ কিছু টিকিট পৌঁছায়নি। স্টেডিয়াম গেটে সেসব টিকিট সংগ্রহ করতে গিয়ে এ ঝামেলার সম্মুখীন হয়েছেন সবাই।’

তিনি জানিয়েছেন টিকিটের অর্থ ফেরত পেতে কিছুই করতে হবে না দর্শকদের। স্বয়ংক্রিয়ভাবে সবাই ফেরত পেয়ে যাবেন নিজ নিজ অর্থ। এলওয়ার্থি বলেন, ‘শুধু ক্ষমা চেয়ে টিকিটের অর্থ ফেরত দেয়াই সমস্যার সমাধান নয়। সবাই স্বয়ংক্রিয়ভাবে টিকিটের অর্থ ফেরত পেয়ে যাবেন, কাউকে কিছুই করতে হবে না।’

এসএএস/এনডিএস/