প্র্যাকটিসে নেই আন্দ্রে রাসেল, নেটে ব্যাট করলেন না গেইলও

আরিফুর রহমান বাবু
আরিফুর রহমান বাবু আরিফুর রহমান বাবু , বিশেষ সংবাদদাতা টনটন, ইংল্যান্ড থেকে
প্রকাশিত: ০৭:৫৮ পিএম, ১৬ জুন ২০১৯

ম্যাচের ফল কি হবে? বাংলাদেশ না ওয়েস্ট ইন্ডিজ- কে হাসবে শেষ হাসি? তা সময়ই বলে দেবে। তবে বাংলাদেশ সমর্থকদের আশাবাদী হওয়ার মত একটা খবর আছে।

যাকে নিয়ে বাংলাদেশ কোচ স্টিভ রোডস সবচেয়ে বেশি চিন্তিত, যাকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং ও বোলিংয়ের প্রধান ট্রাম্পকার্ড ভেবে রণকৌশল আঁটার কথা বলেছিলেন বাংলাদেশ কোচ- সেই আন্দ্রে রাসেল আজ প্র্যাকটিসই করেননি।

সোমবারের ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে আন্দ্রে রাসেল খেলবেন- এমন নিশ্চয়তাও মেলেনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে নিয়মিত অনুস্মরণ করা এবং দলটির প্র্যাকটিস কভার করা সাংবাদিকদের কাছ থেকে যে তথ্য পাওয়া গেল, তাতে আন্দ্রে রাসেলের সোমবার (১৭ জুন) বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলার সম্ভাবনা খুব কম।

কারণ আন্দ্রে রাসেল হাঁটুর ব্যাথায় ভুগছেন এবং ভাবা হচ্ছে হাঁটু ব্যাথার কারণেই এ বিপজ্জনক অলরাউন্ডার ও হার্ডহিটার সমারসেট ক্লাব কাউন্টি গ্রাউন্ডের সেন্টার উইকেটে নেটে ব্যাট করেননি। ব্যাটিং-বোলিং কোন কার্যক্রমেই অংশ নেননি তিনি। সবচেয়ে বড় কথা ওয়েস্ট ইন্ডিজের পূর্ণাঙ্গ প্র্যাকটিসে সেশনে আন্দ্রে রাসেলের দেখাও মেলেনি।

তিনি ব্যাটিং, বোলিং কিংবা ফিল্ডিং কোন প্র্যাকটিসই করেননি। যদিওবা দলের সাথে মাঠে এসেও থাকেন, তাও ড্রেসিং রুমেই হয়ত বসেছিলেন। মাঠেই নামেননি।

এদিকে টনটনের সমারসেট কাউন্টি ক্লাব মাঠে জানা হলো এক নতুন তথ্য। তা হলো যে কোন ম্যাচের আগের দিন মানে শেষ প্র্যাকটিস সেশনে আন্দ্রে রাসেল অন্তত দুই ঘন্টা নেটে কাটান। এক ঘণ্টার বেশি ব্যাটিং প্র্যাকটিস করেন। যার একটা বড় সময় কাটে শুধু পাওয়ার হিট করে, মানে ছক্কা ও বাউন্ডারি হাঁকানোর কসরতেই।

এটা নাকি প্রতি ম্যাচের আগেরদিন আন্দ্রে রাসেলের প্র্যাকটিসের সহজাত বৈশিষ্ট্য। মাঠে নেমে যাকে তাকে যেখান দিয়ে খুশি ইচ্ছেমত যে ছক্কা হাঁকান, তার অনুশীলনটা আসলে আগের দিনের প্র্যাকটিসেই সেরে রাখেন।

অনেকটা ‘স্টেজ রিহার্সেলে’র মত। পরদিন মাঠে গিয়ে শুধু মারের প্রদর্শনি; কিন্তু আজ দুই ঘণ্টা নেটে থাকা তো বহুদুরে, চার ও ছক্কার ফুলঝুরি হাঁকানোর অনুশীলন করতেও দেখা গেল না এ সুঠাম দেহী ক্যারিবীয় অলরাউন্ডারকে।

এ ছাড়া আজ সমারসেট কাউন্টি ক্লাবের মাঠে খোলা আকাশে ওয়েস্ট ইন্ডিজের নেটে আরও একজন ব্যাট করলেন না, তিনি ক্রিস গেইল। ড্যারেন ব্রাভো, সাই হোপ, শিমরন হেটমায়ার আর নিকোলাস পুরানরা তিনটি নেটে ভাগ হয়ে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করলেন। কিন্তু তাতে দেখা গেল না গেইলকে।

বিশ্ব ক্রিকেটের এ ভয়ঙ্কর উইলোবাজ সেন্টার উইকেটে ব্যাট হাতেই নামেননি। তবে ভাববেন না, তিনিও রাসেলের মত মাঠেই আসেননি, অনুশীলন করেননি। গেইল ঠিকই প্র্যাকটিস করেছেন। তবে ব্যাটিংটা ঝালিয়ে নিয়েছেন ইনডোরে। ইনডোরে ব্যাটিং অনুশীলন করেছেন বেশ অনেক্ষণ।

এদিকে সোমবার যেমন বাংলাদেশ পূর্ণাঙ্গ অনুশীলন করেছে, আজ ঠিক তেমনিভাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজও সেন্টার উইকেটে একটু ভিন্ন আঙ্গিকে খোলা আকাশের নিচে সেন্টার উইকেটে প্র্যাকটিস করলো।

সবচেয়ে ডান দিকের পিচে শুধু ফাস্ট বোলাররা বল করলেন। কেমার রোচ, ওশানে থমাস আর শ্যানন গ্যাব্রিয়েলরা সেখানে বল করলেন অনেকটা সময়। আর তার এক পাশের নেটে শুধু স্পিনাররা বল করে গেলেন একটানা। তাদের বিপক্ষে সব স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যানই ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে কখনো ফাস্ট বোলিং আর কোন সময় স্পিন বোলিংয়ের বিপক্ষে একেক নেটে এসে ব্যাট করলেন।

একটি নেটে শুধু বল ছুঁড়ে দেয়া হলো । ওই যে প্লাস্টিকের তৈরি ‘বল ভিতরে রেখে ব্যাটসম্যানকে সাইড আর্মে ছোড়ার যে যন্ত্র’ থ্রোয়ার দিয়ে বল ছোড়া হলো মাঝখানের নেটে। এভাবেই বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের ঝালিয়ে নিল ক্যারিবীয়রা। প্র্যাকটিসের পুরো সময় ভিডিও’ও করা হলো।

এআরবি/আইএইচএস/জেআইএম