রোজ বোলের উইকেট কেমন? দুই কোচের দুই মত

আরিফুর রহমান বাবু
আরিফুর রহমান বাবু আরিফুর রহমান বাবু , বিশেষ সংবাদদাতা সাউদাম্পটন থেকে
প্রকাশিত: ০৯:২৫ পিএম, ২৩ জুন ২০১৯

একই মাঠের পিচকে দুই দলের কোচ দুই রকম ভাবছেন। বাংলাদেশ কোচ স্টিভ রোডস মনে করেন, সাউদাম্পটনের রোজ বোলের পিচ স্লো। ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে বল একটু থেমে আসবে।

কিন্তু যে দলটি মাত্র ২৪ ঘণ্টা  আগে এই মাঠেই ভারতের বিপক্ষে খেলেছে, সেই আফগানিস্তানের কোচ ফিল সিমন্স কিন্তু মোটেই তা মনে করেন না। তার ব্যাখ্যা, ‘আমার মনে হয় না উইকেট স্লো। বল থেমে আসে না। আসলে আগের দিন ভারত আর আফগানিস্তান দুই দলের বোলাররা বেশি ভালো বল করেছে। তাই রান কম হয়েছে। উইকেট মোটেই স্লো নয়।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ২৬ টেস্ট আর ১৪৩টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলা ফিল সিমন্সের দীর্ঘ খেলোয়াড়ি জীবনের অভিজ্ঞতা ঠিক নাকি ইংলিশ স্টিভ রোডসের ধারণা ঠিক? উইকেট আসলে কেমন?

এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গেলে একটু পিছনে ফিরে তাকানো দরকার। বাংলাদেশ ভক্ত ও সমর্থকদের জন্য চিন্তার কারণ হলো, স্টিভ রোডস কিন্তু এর আগেও উইকেট বুঝতে ভুল করেছিলেন (লন্ডনের দ্য ওভালে, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে)। তাই ভয় লাগে, সংশয়-সন্দেহ হয়, বাংলাদেশের কোচ স্টিভ রোডস কি আবারও উইকেটের চরিত্র সম্পর্কে ভুল ধারণা করতে যাচ্ছেন? নাকি প্রতিপক্ষকে কথার মারপ্যাঁচে ফেলতেই উইকেট নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বলেছেন উইকেট স্লো।

যদিও শোনা খবর, তবে ভিত্তিহীন নয়। দলের ভেতর থেকেই শোনা, বাংলাদেশ দলের ইংলিশ কোচ স্টিভ রোডস নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে ওভালের উইকেট চিনতে ভুল করেছিলেন। আগের ম্যাচে তার দল ৩৩০ রান করেছিল। তাই স্টিভ রোডস ভেবেছিলেন, পরের ম্যাচের পিচও একই রকম। তাই তিনি মিডল অর্ডারে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আর মোহাম্মদ মিঠুনকে ম্যাসেজ পাঠান, ব্যাট চালিয়ে খেলতে।

সেটাই শেষ পর্যন্ত কাল হলো। কারণ, ওই পিচ আসলে ছিল ২৭০ থেকে ২৮০ রানের। ম্যাচ শেষে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনেও মাশরাফি বলে দিয়ে যান, উইকেট আগের ম্যাচের মত ছিল না। এটা আসলে ৩৩০ বা ৩০০ প্লাস নয়, ২৭০-৮০ রানের পিচ।’

rhodes

সত্যিই তাই। আর তা ভেবে খেলতে পারলে হয়ত নিউজিল্যান্ডের সাথে জেতা সম্ভব হতো। ওই ম্যাচে ২৪৪ রান করেও সমান তালে লড়াই করেছে বাংলাদেশ। এক পর্যায়ে জেতার সম্ভাবনাও জাগিয়েছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে গিয়ে হারতে হলো বাংলাদেশকে।

কাজেই স্টিভ রোডস উইকেটের চরিত্র বুঝতে আরও একবার ভুল করবেন না, তাইবা কি করে বলা? আজ সংবাদ সম্মেলনে স্টিভ রোডসের কাছে প্রশ্ন ছিল, ‘আপনি কি ভারত আর আফগানিস্তান ম্যাচ দেখেছেন? উইকেট কেমন মনে হলো?’

স্টিভ রোডস বলে উঠলেন, ‘কাল আমাদের ঐচ্ছিক অনুশীলন ছিল। তার মধ্যেও আমি যতটা সময় পেরেছি, ততক্ষণ টিভিতে ভারত ও আফগানিস্তানের ম্যাচ দেখেছি। আমার দেখে মনে হয়েছে উইকেট স্লোয়ার। বল একটু থেমে আসছিল।’

আফগান কোচ ফিল সিমন্স নাকি বাংলাদেশ প্রশিক্ষক স্টিভ রোডস, কার বক্তব্য সঠিক? তা বোঝা যাবে আগামীকাল। তবে উইকেটের চরিত্র বোঝায় ভুল করা যাবে না। উইকেটের আচরণ ও গতি-প্রকৃতি ঠিকমত বুঝে উঠতে না পারলে কিন্তু সেই নিউজিল্যান্ডের সাথে ম্যাচের মতোই ভুগতে হতে পারে।

এদিকে শুধু উইকেট নয়, বাংলাদেশ কোচ স্টিভ রোডস সাউদাম্পটনের রোজ বোলের আউটফিল্ড নিয়েও কথা বলেছেন। এবং আউটফিল্ডে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের সম্ভাব্য করণীয়ও স্থির করে ফেলেছেন।

তার অনুভব, ‘আমি হ্যাম্পশায়ারের এই মাঠ মানে, রোজ বোল সম্পর্কে জানি। আউটফিল্ড অনেক অনেক বড় এবং এই মাঠে বাতাসে ভাসিয়ে ছক্কা হাঁকানো কঠিন। চার মারাও সহজ নয়। আমার মনে হয়, এই মাঠে সিঙ্গেলস-ডাবলস হবে বেশি। আর চারের বদলে হয়ত তিন রানও হবে প্রচুর।’

তার মানে, শুধু মেরে খেললেই চলবে না। সোমবার ব্যাটসম্যানদের রান করতে হলে উইকেটের দু’দিকে দৌড়াতেও হবে বেশি।

এআরবি/আইএইচএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :