‘সব তো চামচে তুলে খাওয়ানো যায় না’ - জাদেজাকে নিয়ে ধোনি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৪২ পিএম, ০২ মে ২০২২

আইপিএল শুরুর আগেই কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল চেন্নাই সুপার কিংস। মহেন্দ্র সিং ধোনির যেহেতু ক্যারিয়ার প্রায় শেষ হয়ে এলো, তাহলে নতুন অধিনায়কের অধীনেই পথ চলুক দল। সে কারণেই ধোনির পরিবর্তে নেতৃত্বভার তুলে দেয়া হয় রবিন্দ্র জাদেজার কাঁধে।

আইপিএলে কত তরুণ ক্রিকেটার নেতৃত্বের দায়িত্ব নিয়ে সফল হচ্ছেন! শ্রেয়াশ আয়ার, রিশাভ পান্ত, হার্দিক পান্ডিয়া, সাঞ্জু স্যামসন কিংবা মায়াঙ্ক আগরওয়াল থেকে শুরু করে লোকেশ রাহুল- এরা তো দারুণ সফলতার পরিচয় দিচ্ছে। নেতৃত্বেও মুন্সিয়ানা দেখাচ্ছে।

সেখানে কেন পারবেন না রবিন্দ্র জাদেজা? জাতীয় দলের সেরা এই অলরাউন্ডারের কাঁধে তাই নেতৃত্বভার ছেড়ে দিয়ে হাঁফ ছেড়ে বাঁচতে চেয়েছিলেন ধোনি। কিন্তু ধারণার সঙ্গে বাস্তবতার মিল পেলেন না মোটেও। জাদেজার দুর্বল নেতৃত্বে একের পর এক ম্যাচ হেরে চলছে চেন্নাই সুপার কিংস।

অবশেষে আইপিএলে নিজেদের ৯ম ম্যাচে এসে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে নিজে থেকে নেতৃত্ব ছেড়ে দিলেন জাদেজা। চেন্নাই সুপার কিংস কর্তৃপক্ষ আবারও নেতৃত্বে ফিরিয়ে আনলো মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। নেতৃত্বে ফিরেই দলকে জয়ের রাস্তায় ফেরালেন ধোনি। হায়দরাবাদকে ১৩ রানে হারিয়েছে চেন্নাই।

CHennai

সানরাইজার্স ম্যাচের পর আইপিএলের অফিসিয়াল ব্রডকাস্টার স্টার স্পোর্টসের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে রবিন্দ্র জাদেজার দুর্বলতা, অক্ষমতা নিয়ে অনেক কথাই বলেছেন ধোনি। ধোনি দাবি করেন, গত মৌসুমের শেষ দিক থেকেই জাদেজা জানতেন যে, তাকে অধিনায়কত্ব করতে হবে এই মৌসুমে। ধোনি আরও যোগ করেন, ‘তার লক্ষ্য ছিল জাদেজা যেন সব সিদ্ধান্ত নিজেই নেন এবং তিনি সেই চেষ্টাটাই করেছেন।’

এ পর্যায়ে এসে শিশুর মত কাউকে কোনো কিছু চামুচে করে মুখে তুলে খাইয়ে দিতে হয় না। ধোনি বলেন, ‘আপনি তো সবটা চামচে করে খাইয়ে দিতে পারবেন না? তাই না। যখন আপনি অধিনায়ক হবেন, অনেক কিছু প্রত্যাশা করা হবে আপনার কাছে। যার প্রভাব পারফরম্যান্সের উরপর পড়তে পারে। যা সারাক্ষণ মাথায় ঘুরতে থাকে। আমি মনে করি, এটাই হয়েছিল তার (জাদেজার) ক্ষেত্রে। অধিনায়কত্ব তার প্রস্তুতি এবং পারফরম্যান্সের উপর চাপ তৈরি করেছিল। আগের মতো প্রত্যয় নিয়ে সে ব্যাটিং বা বোলিংও করতে পারছিল না।'

ম্যাচ শেষে ম্যাচে জয় নিয়ে ধোনি বলেন, ‘আমাদের স্কোরটা বেশ ভাল ছিল। আমি আলাদা কিছুই করিনি। ব্যাপারটা মোটেও এমন নয় যে অধিনায়ক পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে সবকিছুতে বিরাট পরিবর্তন হয়ে যায়। আমাদের টার্গেটটা খুব ভাল ছিল। শিশির পড়ছিল। ফলে আমাদের খুব ভাল বোলিং করতেই হত।’

‘৭ থেকে ১৪ ওভারের মধ্যে স্পিনাররা খুব ভাল বল করেছে। ম‌্যাচ জেতার যা অন্যতম কারণ। আমাদের হাতে ওরা অতিরিক্ত কিছু রান তুলে দেয়। এর মাধ্যমে যা হাতে রেখে পরবর্তী বোলাররা কাজ করতে পারে। একটা সময় বোলাররা দুই ওভারে ২৫ রান দিয়ে ফেলেছিলো। ফলে আমাদের আলাদা কিছুর চেষ্টা করতেই হত। আমি বোলারদের বলেছিলাম, ওভারে চার বলে চারটি ছক্কা খেলেও তোমাদের হাতে দুটো বল থেকে যাচ্ছে কিছু করার। সবাই এই তত্ত্বটা হয়তো মানতে পারবেন না। তবে আমি মনে করি এটা কাজ করে।'

জাদেজার অধিনায়কত্ব প্রসঙ্গে ধোনির মন্তব্য, ‘আমি মনে করি জাদেজা গত মৌসুম শেষেই জানত এই মৌসুমে ওকে অধিনায়কত্ব করতে হবে। প্রথম দুটো ম্যাচে আমি তার কাজ পর্যবেক্ষণ করেছি, ওকে সাহায্য করেছি। পরবর্তী ম্যাচগুলোতে তাকে তার সিদ্ধান্ত নিতে ছেড়ে দিয়েছি। আমি তাকে জোর করেছিলাম, যাতে করে সে নিজের সিদ্ধান্ত নিজে নেয়। সে সিদ্ধান্তের দায়িত্ব সে নেয়।’

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]