‘লোপেতেগুই-পেরেজ দেশের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন’

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৫৭ পিএম, ১৪ জুন ২০১৮

এক কান্ডেই টালমাটাল স্পেনের জাতীয় ফুটবল। বিশ্বকাপের ঠিক আগমুহূর্তে রিয়াল মাদ্রিদ তাদের নতুন কোচ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে হুলেন লোপেতেগুইয়ের নাম। এরপর আর দেরি করেনি স্পেন ফুটবল ফেডারেশন, লোপেতেগুইকে বিদায়ের চিঠি হাতে ধরিয়ে দিয়েছে তারা। বিশ্বকাপের অন্যতম ফেবারিট একটি দলে এমন ঝড়ের খবর শুনে হতচকিত পুরো ফুটবল বিশ্ব।

স্পেনের স্বনামখ্যাত সাংবাদিক হোসে মারিয়া গার্সিয়া মনে করছেন, ন্যাক্কারজনক এই কান্ডে জড়িয়ে রিয়াল মাদ্রিদ বস ফ্লোরেন্তিনা পেরেজ আর লোপেতেগুই দুজনই দেশের সঙ্গে বড় ধরণের বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন।

'রেডিও মার্কা'র সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে হোসে মারিয়া গার্সিয়া বলেন, ‘এই দুজন-ফ্লোরেন্তিনা পেরেজ আর লোপেতেগুই, দেশের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতার মতো বিলাসিতা দেখিয়েছেন। সে (লোপেতেগুই) আমার বন্ধু ছিল, আমাকে ভীষণ হতাশ করেছে। আমি লোপেতেগুইয়ের সঙ্গে দেখা করব না, কারণ সে এখন কারও মুখের দিকে তাকিয়ে কথা বলতেও পারবে না। তার আর্থিক কোনো সমস্যা ছিল না, সে রিয়াল মাদ্রিদে যেতেই পারে, তবে এমন মূল্য চুকিয়ে নয়।’

৫১ বছর বয়সী লোপেতেগুই জাতীয় দলের দায়িত্ব নেয়ার পর একটি ম্যাচও হারেনি স্পেন। স্বভাবতই এবারের বিশ্বকাপে তারা টপ ফেবারিট হিসেবেই পা রেখেছে। শেষ মুহূর্তে এসে কোচের ঝামেলায় এক নিমিষেই সব উল্টে পাল্টে গেল।

গার্সিয়াও মনে করছেন, সব পরিশ্রম আর অর্জন জলে ঢেলে দিয়েছেন লোপেতেগুই। তিনি বলেন, ‘এটা বলতে কষ্ট হচ্ছে। আমরা বাছাইপর্বে দুর্দান্ত খেলার মাধ্যম বিশ্বকাপে বড় আশা নিয়ে এসেছিলাম। সব কিছুই শেষ হয়ে গেল হুলেন লোপেতেগুইয়ের বিশ্বাসঘাতকতা এবং স্বার্থপরতা, সেই সঙ্গে ফ্লোরেন্তিনা পেরেজের পদক্ষেপের কারণে। তিনি রিয়াল মাদ্রিদকে একটি মেশিন বানিয়ে ফেলেছেন, যেটা মানুষ খুবই অপছন্দ করে।’

এমএমআর/জেআইএম