আর্জেন্টিনা-ফ্রান্স কঠিন লড়াই হবে মনে করছেন ক্রুসিয়ানি

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা কাজান, রাশিয়া থেকে
প্রকাশিত: ০৫:৫৩ পিএম, ৩০ জুন ২০১৮

আর কয়েক ঘণ্টা পর আর্জেন্টিনা ও ফ্রান্সের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে রাশিয়া বিশ্বকাপের দ্বিতীয় পর্বের লড়াই। ৩২ দেশের এ টুর্নামেন্ট থেকে ইতোমধ্যেই বিদায় নিয়েছে অর্ধেক দল। এখন শেষ ষোলোটি দল লড়বে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে। প্রথম পর্বের বড় অঘটন ছিল গতবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানির বিদায়। জোয়াকিম লো’র দলকে বিদায় করেছে এশিয়ার অন্যতম পরাশক্তি দক্ষিণ কোরিয়া।

যে ১৬ দল টিকে আছে বিশ্বকাপের লড়াইয়ে তাদের মধ্যে ৬টিরই আছে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অভিজ্ঞতা। শুধু তাই নয়, দ্বিতীয় পর্বের একটি ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে দুই সাবেক চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা এবং ফ্রান্স। শনিবার বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় লাতিন ও ইউরোপের দুই পরাশক্তির ফুটবলযুদ্ধ শুরু হবে রাশিয়ার কাজান এরেনায়।

আর্জেন্টিনা ও ফ্রান্সের লড়াইয়ে কে ফেবারিট? কাগজ-কলমে যে দলকেই ফেভারিট বলা হোক না কেন, জনতার ফেভারিট কিন্তু আর্জেন্টিনা। দু’বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার বিশ্বজুড়ে যে সমর্থক আছে তার ধারে-কাছে নেই ফ্রান্স। বিশ্বের ফুটবলামোদীদের দৃষ্টি এখন রাশিয়ার ‘ক্রীড়া রাজধানী’ কাজানে।

এ ম্যাচের ফলাফল কী হতে পারে তা নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণে ব্যস্ত ফুটবলবোদ্ধারা। কী ভাবছেন বাংলাদেশ ফুটবলের সাবেক প্রধান কোচ আর্জেন্টিনার দিয়েগো ক্রুসিয়ানি। এই বিশ্বকাপে নিজ দেশের জাতীয় দলের উপর বেশি আস্থা নেই বাংলাদেশের সাবেক কোচের। এবার ঘরে বসেই দেখছেন বিশ্বকাপের খেলাগুলো। দেশে থেকেই তিনি বাংলাদেশের ফুটবলামোদীদের জন্য আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের নানা বিশ্লেষণ করছেন জাগো নিউজের মাধ্যমে।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক এ কোচ মনে করছেন, কঠিন এক লড়াই দিয়েই শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপের নকআউট পর্ব। নিজ দেশের দলকে অভিজ্ঞতায় এগিয়ে রাখলেও ফ্রান্সকে উল্লেখ করেছেন তারুণ্যে ভরা দল হিসেবে।

‘খুবই কঠিন ম্যাচ হবে কাজানে। ফ্রান্স দলে অনেক প্রতিভাবান ফুটবলার আছেন। যদিও ওই খেলোয়াড়দের বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা কম। বিপরীতে আর্জেন্টিনা দলের খেলোয়াড়রা বেশি অভিজ্ঞ’-বলেছেন ক্রুসিয়ানি।

ফ্রান্স তারুণ্যে ভরা দল হলেও একদিকে সেটাকে নেতিবাচকই ভাবছেন ক্রসিয়ানি, ‘খেলোয়াড়দের বেশিরভাগের বিশ্বকাপে খেলার অভিজ্ঞতা নেই। তাছাড়া এই বিশ্বকাপে সেভাবে নিজেদের কার্যকর দল হিসেবেও প্রতিষ্ঠিত করতে পারেনি তারা।’

ক্রসিয়ানি মনে করেন, ফ্রান্সের বিরুদ্ধে কোচ হোর্হে সাম্পাওলি ডি মারিয়াকে বাম দিকে খেলাতে পারেন। সে ক্ষেত্রে রাইট উইংয়ে তিনি খেলাতে পারেন ক্রিশ্চিয়ান পাভনকে। হিগুয়াইনকে একাদশে নাও রাখতে পারেন কোচ।’

আরআই/আইএইচএস/এমএস