ওজিলের বর্ণবাদের অভিযোগ অস্বীকার জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:২১ পিএম, ২৪ জুলাই ২০১৮

রাগে ক্ষোভে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর নিয়েছেন মেসুত ওজিল। ২৯ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার বিদায়বেলায় অভিযোগ করেছেন, তার সঙ্গে বর্ণবাদী ও অবমাননাকর আচরণ করেছে জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (ডিএফবি), তারই ফলশ্রুতিতে এমন সিদ্ধান্ত। তবে তুর্কি বংশোদ্ভূত এই মুসলিম মিডফিল্ডারের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ডিএফবি।

সোমবার হঠাৎই আন্তর্জাতিক ফুটবল ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দেন ওজিল। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুুইটারে তিনি জানিয়ে দেন, আর কখনও জার্মানির জার্সি গায়ে চড়াবেন না। সিদ্ধান্তটা যে রাগের মাথায় নেয়া সেটিও বোঝা গেছে তার কথায়। আর্সেনাল তারকা অভিযোগ করেন, তার সঙ্গে বর্ণবাদী ও অবমাননাকর আচরণ করা হয়েছে। এমনকি রাশিয়া বিশ্বকাপে জার্মানির ব্যর্থতার দায়ও নাকি চাপানো হয়েছে ওজিলের কাঁধে।

ওজিলের এমন অভিযোগ পুরোপুরি উড়িয়ে দিয়েছে জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (ডিএফবি)। তারা এক বিবৃতিতে বলেছে, 'ডিএফবি বর্ণবাদের সঙ্গে সম্পক্ত, এমন অভিযোগ স্পষ্টভাবে প্রত্যাখ্যান করছি আমরা। বহু বছর ধরে জার্মানিতে জাতিগত ঐক্য সাধনে কাজ করে যাচ্ছে ডিএফবি।' তবে তারা স্বীকার করে নিয়েছে, জার্মান মিডফিল্ডারকে বর্ণবাদী আচরণ থেকে বাঁচাতে আরও কিছু করা যেত। ওজিলের অবসরে দুঃখপ্রকাশও করেছে সংস্থাটি।

বিতর্কের শুরু, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ এরদোয়ানের সঙ্গে ওজিলের তোলা এক ছবিকে কেন্দ্র করে। লন্ডনে গত মে মাসে এক ইভেন্টে তোলা ওই ছবি প্রকাশ হবার পর সমালোচনার ঝড় উঠে জার্মান ফুটবলে। তুর্কি বংশোদ্ভূত হওয়ায় ওজিলের দেশপ্রেম নিয়ে প্রশ্ন তুলেন সমর্থকরা। সমালোচনাও মত্ত ছিল জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনও। বিদায়বেলায় ওজিল সংস্থাটির প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে সরাসরি অভিযোগ তুলেন। তবে এই বিষয়ে আলাদা করে কিছু বলেনি ডিএফবি।

এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]