‘নারী লিগ দেশের দাবার বিপ্লব’

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:১৮ পিএম, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

৮ সেপ্টেম্বর, বুধবার দেশের দাবার ঐতিহাসিক এক দিন। এ দিন ঘরোয়া দাবা সূচিতে যোগ হয়েছে নারী লিগ। এতদিন অনেকে অন্যান্য লিগে খেললেও তাদের জন্য আলাদা লিগ ছিল না। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দেশের দাবার মেয়েরা পেলো বহুল প্রত্যাশিত নিজস্ব লিগ।

নারীদের লিগ শুরু করায় বেশ উৎফুল্ল দেশের সর্বকনিষ্ঠ নারী জাতীয় চ্যাম্পিয়ন তনিমা পারভীন।

জাগো নিউজ : দেরিতে হলেও দেশে নারী দাবা লিগ চালু হলো। ফেডারেশনের এই উদ্যোগকে কিভাবে দেখছেন?

তনিমা : খুব ভাল উদ্যোগ। লিগ শুরু করায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা দাবার মেয়েরা আবার খেলায় আগ্রহী হয়ে উঠবেন। আমি বলবো নারী লিগ দেশের দাবার বিপ্লব।

জাগো নিউজ : দেশে শতাধিক আন্তর্জাতিক রেটেড নারী দাবাড়ু আছেন। আপনার কি মনে হয় আরও আগেই নারীদের লিগ শুরু উচিত ছিল?

তনিমা : তাতো অবশ্যই। আগে লিগ শুরু করলে মেয়ে দাবাড়ু আরও বাড়তো।

জাগো নিউজ : আপনি বিমানের হয়ে চারটি ও অনুশীলন ক্লাবের হয়ে একটি প্রিমিয়ার লিগ খেলেছেন। নারী লিগ প্রবর্তনে আপনার বাড়তি কি আগ্রহ তৈরি হয়েছে?

তনিমা : আমি চট্টগ্রাম দাবা কমিটির সম্পাদক। কেন্দ্রীয়ভাবে লিগ শুরু হওয়ায় আমি এখন চট্টগ্রামেও লিগ শুরু করতে উৎসাহিত হচ্ছি।

জাগো নিউজ : আগে নারী লিগ শুরু না হওয়ার কারণ খেলোয়াড় সংকট, নাকি উদ্যোগের অভাব?

তনিমা : আমার মনে হয় নারীদের লিগ যে শুরু করা যায় তা হয়তো কারো মাথায় আসেনি এতদিন।

জাগো নিউজ : লিগ মানেই তো খেলোয়াড়দের একটা আয়ের জায়গা। আগামীতে দলবদলও হবে। আর্থিকভাবে কতটা লাভবান হবেন নারী দাবাড়ুরা?

তনিমা : লিগে যারা ভাল খেলবেন তাদের মূল্যও বেড়ে যাবে। তাই সবাই ভাল খেলতে চাইবেন। যার ফলে পারিশ্রমিকও বাড়বে।

জাগো নিউজ : ধন্যবাদ।

তনিমা : আপনাকেও ধন্যবাদ।

আরআই/এসএএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]