তুরস্কে ফাইনালে উঠে আর পারলেন না বাংলাদেশের ইমরানুর

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৫৯ এএম, ১০ আগস্ট ২০২২

তুরস্কের কোনিয়া শহরে চলছে ইসলামি দেশগুলোর অ্যাথলেটদের নিয়ে ইসলামিক সলিডারিটি গেমস। কমনওয়েলথ গেমস শেষ করে তুরস্কে পদক পাওয়ার আশায় লড়াই করছেন বাংলাদেশের ক্রীড়াবীদরা। বাংলাদেশের দ্রুততম মানব ইমরানুরকে ঘিরে একটা প্রত্যাশা ছিল। সে প্রত্যাশা অনুযায়ী তিনি ফাইনালেও পৌঁছেছিলেন গেমসের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ইভেন্ট ১০০ মিটার স্প্রিন্টে।

কিন্তু ফাইনালে গিয়ে আর পারলেন না। চতুর্থ হিটে যে টাইমিং করেছিলেন, সেটার কাছেও যেতে পারলেন না। উল্টো ফাইনালে দৌড় দেয়া ৬ জনের মধ্যে ৬ষ্ঠ হতে হয়েছে ইমরানুর রহমানকে। ফাইনালে তিনি সময় নিয়েছিলেন ১০.১৭ সেকেন্ড।

অথচ ইভেন্টের ৪র্থ হিটে জীবনের সেরা দৌড়টা দিয়েছিলেন তিনি। বাংলাদেশের হয়েও সেরা। হিটে তিনি দ্বিতীয় হয়েছিলেন ১০.১ সেকেন্ড সময় নিয়ে। বাংলাদেশের হয়ে রেকর্ড দ্রুততম দৌড় এটা। এর আগে ১০.৪৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে আগের রেকর্ডটি গড়েছিলেন ইমরানুরই।

সেমিফাইনালে দুইবার দৌড়াতে হয়েছে ইমরানুরকে। প্রথমবার দৌড়ও শেষ করেছিলেন। ১০.২২ সেকেন্ড সময় নেন তিনি। যদিও এই দৌড় বাতিল হয়ে যায়, দু’জনের ফলস স্টার্টের কারণে। পূনরায় দৌড় অনুষ্ঠিত হলে, সেখানে ইমরানুর টাইটিং করেন ১০.০৬ সেকেন্ড।

কিন্তু ফাইনালে গিয়ে সেমির টাইমিটংটাও করতে ব্যর্থ হলেন ইমরানুর। ফাইনালের প্রতিযোগি ছিলেন ৮ জন। এর মধ্যে একজন হয়ে গেছেন ডিসকোয়ালিফায়েড। আরেকজন ফলস স্টার্ট করে আগেই বাদ পড়েন। বাকি ৬জনের মধ্যে ইমরানুর হলেন ৬ষ্ঠ।

আইভরিকোস্টের আর্থার সিসে গুয়ে ৯.৮৯ সেকেন্ড সময় নিয়ে স্বর্ণ পদক জয় করেন। সৌদি আরবের আবদুল্লাহ আবকার মোহাম্মদ ৯.৯৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে জেতেন রৌপ্য পদক এবং ওমানের বরকত আল হার্থি ৯.৯৯ সেকেন্ড সময় নিয়ে জেতেন ব্রোঞ্জ পদক।

আইএইচএস/

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।