করোনায় মাইক্রোসফটের বাজিমাত

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৩৫ পিএম, ২৯ অক্টোবর ২০২০

করোনা মহামারীতে মাইক্রোসফটের ক্লাউড এবং ভিডিও গেম এর চাহিদা অনেক বেড়ে গিয়েছে। তার পাশাপাশি সংস্থাটির ত্রৈমাসিক আয়ও বৃদ্ধি পেয়েছে।

সূত্র অনুযায়ী মঙ্গলবার সংস্থাটি সেপ্টেম্বরে শেষ হওয়া তিন মাসে ৩৭.২ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে।

মাইক্রোসফ্টের ক্লাউড সেগমেন্টে রাজস্বের পরিমাণ ১৩ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে, যা আগের বছরের তুলনায় ২০% বেশি ছিল। মাইক্রোসফ্ট তাদের এক্সবক্স এবং সারফেস ডিভাইস বিক্রয় করে ১১.৮৫ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে।

মাইক্রোসফ্টের প্রধান নির্বাহী সত্যা নাদেলা বলেন, যে মহামারীর সময়ে ক্লাউড কম্পিউটিং এবং ডিজিটাল সেবার কারণে তাদের কোম্পানি অনেক উপকৃত হয়েছে।

বিশ্লেষকদের মতামত অনুযায়ী মাইক্রোসফ্টের ক্লাউড সেবাগুলো তাদের সংস্থার জন্য অনেক ফলপ্রসূ ভুমিকা পালন করেছে। এছাড়া গেমিং মাইক্রোসফ্টের জন্য ব্যবসায়ের একটি বড় সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে।

মাইক্রোসফ্টের পরিচালক কাইল বিক্রস্টম সিএনএনকে বলেন, বর্তমানে গেমিং বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ এবং দ্রুত বর্ধমান শিল্প। আমরা আশা করি ২০২১ সালে এই শিল্পে ২০০ বিলিয়ন ডলারের বেশি আয় হবে।

এর আগে মাইক্রোসফ্ট ঘোষণা করেছিল যে তারা ভিডিও গেম সংস্থা বেথেসদা-র মূল সংস্থা জেনিম্যাক্স কিনে নিয়েছে। এর ফলে সংস্থাটির“ফলআউট” সিরিজ, এবং “ডুম” ফ্র্যাঞ্চাইজিসহ জনপ্রিয় ভিডিও গেমগুলোর উপর মাইক্রোসফ্টের মালিকানা রয়েছে। এই গেমগুলো মাইক্রোসফ্টকে বর্তমান সময়ে অনেক সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

আসিফ এমদাদ/এমএমএফ/এএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]