টঙ্গীর ডেসকোতে লুট : ১০ আনসার সদস্য গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৬:০৭ এএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭
টঙ্গীর ডেসকোতে লুট : ১০ আনসার সদস্য গ্রেফতার

টঙ্গীতে ঢাকা ইলেক্ট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো) লিমিটেডের সাব-স্টোরের গার্ডকে মারধর করে মালামাল লুটের ঘটনায় মামলা দায়েরের পর ১০ আনসার সদস্যকে দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় তাদের গ্রেফতারও করা হয়েছে।

মামলার বাদী ডেসকোর সাব-স্টোরের দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ রাশেদুল হক (শামছী) জানান, টঙ্গীর সফিউদ্দিন একাডেমির উত্তর পাশে ডেসকোর সাব-স্টোর রয়েছে। সেখানে আনসার শেডে থেকে আনসার সফিকুল ইসলামসহ ১৫ জন আনসার সদস্য তিন শিফটে ডিউটি করেন।

১৫ ডিসেম্বর রাতে সাব-স্টোরের প্রধান গেটের পকেট গেটের সামনে গিয়ে ২০-২৫ জন সন্ত্রাসী আনসার সদস্য সফিকুল ইসলামের সঙ্গে দেখা করবে বললে সেখানে ডিউটিরত আনসার পকেট গেট খুলে দিলে তারা ভেতরে ঢোকে। এসময় সাব-স্টোরের স্পেশাল গার্ড খোরশেদ আলম প্রতিবাদ জানালে তারা তাকে মারধর করলেও আনসার সদস্যরা এর কোনো প্রতিবাদ করেনি।

এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা সাব-স্টোরের গোডাউনের সিল ও তালা ভেঙে বৈদ্যুতিক লাইন নির্মাণ, মেরামতের মালামাল ও সিসিটিভির ডিভিআরসহ প্রায় সাড়ে ১১ লাখ টাকার মালামাল লুটে নিয়ে যায়।

স্পেশাল গার্ড খোরশেদ আলম জানিয়েছেন, ‘ঘটনার দিন দুপুরে কয়েকজন বহিরাগত লোক আনসার সদস্য সফিকুল ইসলামের সঙ্গে দেখা করে গেছে।’

গাজীপুর জেলা আনসার অ্যাডজুডেন্ট মো. সাইদুর রহমান জানান, দায়িত্বে অবহেলার জন্য ওই ১০ জন আনসার সদস্যকে শনিবারই সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এবং ফৌজধারী অপরাধের জন্য তাদের টঙ্গী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনার তদন্তে জড়িত থাকার বিষয়টি প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

টঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফিরোজ তালুকদার জানান, ওই লুটের ঘটনায় শনিবার রাতে ডেসকোর পক্ষ থেকে টঙ্গী থানায় মামলা হয়েছে। পরে ওই ১০ জনকে আনসার কর্তৃপক্ষ থানায় সোপর্দ করেছে এবং ওই মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

আমিনুল ইসলাম/এফএ/এমএস