টাঙ্গাইলে এডিসির গাড়ি চুরি, পুলিশের ধারণা চোর মানসিক রোগী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০১:৩৪ পিএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০১:৪১ পিএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭

টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নেসার উদ্দিন জুয়েলের ব্যবহৃত জিপ গাড়ি নিয়ে পালানো অজ্ঞাত এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার সন্ধ্যায় টাঙ্গাইল কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ থেকে তাকে গাড়িসহ আটক করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী চন্দন নাথ চৌহানসহ বেশ কয়েকজন জানান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নেসার উদ্দিন জুয়েলের ব্যবহৃত মিতসুবিসি পাজেরো জিপ টাঙ্গাইল-ঘ-১১-০০১১ গাড়ি নিয়ে প্রচণ্ড গতিতে ঈদগাহ মাঠে প্রবেশ করার পর গাড়িটি আটকে যায়। এ সময় স্থানীয়রা এগিয়ে এসে অজ্ঞাতনামা ওই চোরকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গাড়িটি উদ্ধার ও চোরকে আটক করে।

ADC-Jip

তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের অভিযোগ সার্কিট হাউসের দায়িত্বপ্রাপ্তদের সামনে থেকে কীভাবে অত্যাধুনিক এই গাড়িটি নিয়ে চোর বাইরে এলো। এ নিয়ে যথেষ্ট প্রশ্ন রয়েছে। একজন প্রকৃতচালক ব্যতীত এই গাড়িটি নিয়ে শহরের প্রায় তিন কিলোমিটার সড়ক অতিক্রম করে এখানে আসা সম্ভব হতো না।

এ নিয়ে জেলা প্রশাসকের সহকারী নাজির জয়নাল আবেদীন খান জানান, গাড়িটি অব্যবহৃত অবস্থায় প্রায় ১ মাস যাবৎ সার্টিক হাউসের ভেতরের ডিসি পরিবহন পুলে পার্কিং অবস্থায় ছিল। গাড়িটি কীভাবে ঈদগাহে এলো বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। প্রয়োজনে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ADC-Jip

টাঙ্গাইল মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মুরাদুজ্জামান বলেন, গাড়িটি উদ্ধার ও চোরকে আটক করা হলেও মনে হচ্ছে এ গাড়ি চুরির ঘটনায় জড়িত ব্যক্তি মানসিক সমস্যাগ্রস্ত। এ কারণে তাকে ডাক্তারি পরীক্ষা করে দেখা হবে। ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে চিকিৎসকের মতামতের ভিত্তিতে এ ঘটনায় মামলা দায়ের হবে কীনা সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

এ প্রসঙ্গে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) নেসার উদ্দিন জুয়েল চুরির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গাড়িটি উদ্ধারকৃত এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে এ ঘটনায় জড়িত ও দায়িত্ব অবহেলাকারীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরিফ উর রহমান টগর/এমএএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :