তরুণীকে উত্ত্যক্তের অভিযোগে ২ কনস্টেবল প্রত্যাহার

উপজেলা প্রতিনিধি ঈশ্বরদী (পাবনা)
প্রকাশিত: ১১:২৬ এএম, ১১ জানুয়ারি ২০১৮

পাবনার ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে এক তরুণীকে উত্ত্যক্তের অভিযোগে রেলওয়ে থানা পুলিশের ২ কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে শুধু প্রত্যাহার নয় আইন অনুযায়ী তাদের শাস্তি দাবি করেছেন ট্রেনযাত্রী ওই তরুণীর মা অ্যাডভোকেট শাম্মী আক্তার।

অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যরা হলেন- সাজ্জাদ হোসেন (১০৭৮) ও অসীম কুমার (১০৭৯)। ক্লোজড হওয়া ওই ২ পুলিশ সদস্যদের সৈয়দপুর রেলওয়ের পুলিশ লাইনে পাঠানো হবে বলে জিআরপি থানার ওসি রুহুল আমিন খান নিশ্চিত করেছেন।

অ্যাডভোকেট শাম্মী আক্তার জানান, আন্তনগর রূপসা এক্সপ্রেস ট্রেনে ঈশ্বরদী থেকে বিরামপুর যাওয়ার উদ্দেশে তিনি দুই ছেলে-মেয়েকে নিয়ে ২ নম্বর প্লাটফর্মে অপেক্ষা করছিলেন। ট্রেন লেট থাকায় তারা দীর্ঘসময় প্লাটফর্মে বসেছিলেন। মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে দুই তরুণ বিভিন্ন ভাবে তার মেয়েকে লক্ষ্য করে ইশারা করছিল। একইসময় ওই লাইনে একটি লোকাল ট্রেন এলে ওই দুইজন ট্রেনের কামরায় উঠে মোবাইলে তার মেয়ের ছবি তোলে।

তিনি তৎক্ষণাৎ এর প্রতিবাদ করে তাদের উদ্দেশে এগিয়ে গেলে ওই ২ যুবক পাশেই জিআরপি থানার মধ্যে ঢুকে পড়ে। তবে এসময় শাম্মী আক্তারকে থানায় ঢুকতে বাধা দেন অন্য পুলিশ সদস্যরা। এক পর্যায়ে এক সেন্ট্রি শাম্মী আক্তারের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

তিনি বলেন, ঘটনার প্রতিবাদ করেও কোনো ফল না পাওয়ায় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসে এবং এক পর্যায়ে থানার ওসিকে খবর দেন। ওসি রুহুল আমিন খান থানায় এসে যাত্রী এবং উপস্থিত মানুষের অভিযোগ শুনে তাৎক্ষণিক ঘটনা তদন্ত করেন এবং ওই ২ পুলিশকে ক্লোজড করেন।

আলাউদ্দিন আহমেদ/এফএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :