মাভাবিপ্রবিতে অর্ডিন্যান্স পরিবর্তনের দাবি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০৮:৩৯ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৮
মাভাবিপ্রবিতে অর্ডিন্যান্স পরিবর্তনের দাবি

মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (মাভাবিপ্রবি) সেমিস্টার পরীক্ষার অর্ডিন্যান্স পরিবর্তনের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাফেটেরিয়ার সামনে থেকে একটি মিছিল বের করে শিক্ষার্থীরা প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেয়।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, কোনো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এত কঠিন অর্ডিন্যান্স নেই। শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের জন্য অর্ডিন্যান্সের পরিবর্তন চান তারা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা আমরণ অনশনের ঘোষণা দেন।

তারা আরও জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কাছে অডিন্যান্সে নয়টি পরিবর্তন চেয়ে স্মারকলিপি জমা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে- মোট প্রাপ্ত গ্রেড পয়েন্টকে অর্জিত ক্রেডিট দ্বারা ভাগ করা, ব্যাকলগ সিস্টেম চালু করা, উত্তীর্ণ হওয়ার জন্য জি.পি.এ (২.০০) করা, শিক্ষার্থীর ইচ্ছামত সময়ে ব্যাকলগ দেয়ার সুযোগ, সর্বনিম্ন ৩ বার ব্যাকলগ দেয়ার সুযোগ, অকৃতকার্য হওয়া পরীক্ষায় কৃতকার্য সর্বমোট সি.জি.পি.এ ৩.৮০ পেলে ডিনলিস্টে দেয়ার সুযোগ, বিশেষ পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ এবং পরিবর্তনগুলো কার্যকর করতে হবে ২০১৩-১৪ সেশন থেকে সর্বশেষ সেশন পর্যন্ত।

এ বিষয়ে ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি বিভাগের ৩য় বর্ষ ১ম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী মোবারক হোসেন বলেন, অর্ডিন্যান্সের জন্য অনেক ছাত্র আজ ছাত্রত্ব হারাতে বসেছে। অর্ডিন্যান্সের জন্য গড়ে সকল বিভাগের ২৫ শতাংশ শিক্ষার্থী ঝরে পড়ছে। আমরা এ অর্ডিন্যান্সের পরিবর্তন চাই।

ফুড টেকনোলজি অ্যান্ড নিউট্রিশনাল সায়েন্স বিভাগের ২য় বর্ষ ২য় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান বলেন, অন্য কোনো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এত কঠিন অর্ডিন্যান্স নেই। কোনো পরীক্ষায় ভালো করলেও এক বিষয়ে খারাপ করার জন্য সকল পরীক্ষা আবার দিতে হয় এবং ছোট ভাই-বোনদের সঙ্গে ক্লাস ও পরীক্ষা দিতে হয়।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বিকেল ৫টায় সকল শিক্ষকদের নিয়ে জরুরি সভা ডাকা হয়েছে। সভায় সমস্যার সমাধান হবে বলে আশা করছি।

আরিফ উর রহমান টগর/আরএআর/আরআইপি