আচরণবিধি লঙ্ঘন করলে ব্যবস্থা : নির্বাচন কমিশনার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৭:৪২ পিএম, ১১ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৭:৪৭ পিএম, ১১ এপ্রিল ২০১৮
আচরণবিধি লঙ্ঘন করলে ব্যবস্থা : নির্বাচন কমিশনার

নির্বাচন কমিশনার ড. রফিকুল ইসলাম বলেছেন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কোনো অরাজকতা বরদাস্ত করা হবে না। কেউ আইন অমান্য করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে যা দরকার নির্বাচন কমিশন তার সবকিছুই করবে।

বুধবার বিকেলে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার, সহকারী রির্টানিং অফিসার ও নির্বাচন সহায়ক কর্মকর্তাদের দু’দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রার্থীদের আচরণবিধি লংঘনের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার বলেন, অনেকেই প্রার্থী হতে প্রচারণা বা সমাবেশ করেছেন। নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার আগ পর্যন্ত তারা বৈধভাবে প্রার্থী নন। প্রার্থী হওয়ার পর আচরণ বিধি লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়া হবে। নির্বাচন কমিশন আগাম প্রচারণার ফেস্টুন, বিলবোর্ড, ব্যানার ইত্যাদি নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নিতে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সময় দিয়েছে। ওই সময়ের পর কোনো প্রার্থীর আগাম প্রচারণা সামগ্রী পাওয়া গেলে কমিশন ও সিটি করপোরেশন অভিযান চালিয়ে অপসারণ করবে। এক্ষত্রে অপসারণ ব্যয় প্রার্থীর কাছ থেকে আদায়ের উদ্যোগ নেয়া হবে। সব প্রার্থীর সমান সুযোগ নিশ্চিত করার জন্য নানা পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

এর আগে দুপুরে তিনি নির্বাচন কমিশনার ড. রফিকুল ইসলাম সার্কিট হাউজে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সমন্বয় সভা করেন। এ সময় তিনি কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনার ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনকে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা প্রয়োজন। তিনি নির্বাচনের সঙ্গে জড়িত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদেরকে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ব্যাপারে কড়া দৃষ্টি এবং নির্বাচনী আইন ও বিধি মোতাবেক কার্যক্রম পরিচালনার নির্দেশ দেন।

এ সময় রিটার্নিং অফিসার রকিব উদ্দিন মণ্ডল, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমীনুল ইসলামসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মো. আমিনুল ইসলাম/আরএ/পিআর