দুই ভবনের মাঝখানে গৃহকর্মীর লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৬:৪১ পিএম, ১৪ জুন ২০১৯

সিলেট নগরের সাগর দিঘীরপাড় থেকে শাহানা আক্তার (১৮) এক গৃহকর্মীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে ওই এলাকার লাগোয়া দুটি ১২ তলা ভবন আপন ব্লু-টাওয়ার ও আপন হোয়াইট হাউসের মধ্যবর্তী স্থান থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। পরে কোতোয়ালি থানা পুলিশ মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের মর্গে প্রেরণ করে।

নিহত শাহানা আক্তারের বাড়ি জৈন্তাপুর উপজেলার ঠাকুরের মাটি গ্রামে। তিনি আপন ব্লু-টাওয়ারের ১০ তলায় এ ব্লকে বিমানের সাবেক পাইলট আক্তারুজ্জামান ও ডা. হাসিনা মুন্নি দম্পতির ফ্ল্যাটে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করতেন।

ঘটনার পর গণমাধ্যম কর্মীরা ঘটনাস্থলে গেলে গৃহকর্তা বিমানের সাবেক পাইলট আক্তারুজ্জামান ফ্ল্যাট থেকে নিচে নামেননি। কী কারণে শাহানা আত্মহত্যা করেছেন তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ।

গৃহকর্তা আখতারুজ্জামান বলেন, ৬/৭ মাস ধরে শাহানা আমাদের বাসায় কাজ করে। ছাদ থেকে পড়ে তার মৃত্যু হতে পারে।

Sylhet-Pic--3

এ বিষয়ে সিলেট ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক মুজিবুর রহমান চৌধুরী বলেন, খবর পেয়ে ওই গৃহকর্মীর মরদেহ বহুতল দুই ভবনের মাঝখান থেকে উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহতের একটি পা ভাঙা ও মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানান তিনি।

কোতোয়ালি থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) ছাহাবুল ইসলাম বলেন, ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় পুলিশ দুই ভবনের মাঝখান থেকে মরদেহটি উদ্ধার করেছে। কীভাবে সে মারা গেলো তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ছামির মাহমুদ/আরএআর/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :