ভাগনিকে অপহরণ করলেন খালু

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)
প্রকাশিত: ০৬:৫৭ পিএম, ২০ জুলাই ২০১৯
প্রতীকী ছবি

স্ত্রীর বোনের মেয়েকে (ভাগনি) অপহরণের ঘটনায় খালুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অপহৃত কিশোরীর মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার দুপুরে ঢাকার ডেমরা থানার সারুলিয়া থেকে খালু শিপন ওরফে সবুজকে (২৮) গ্রেফতার করা হয়। একই সঙ্গে অপহৃত কিশোরী সালমাকে (১৪) উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় অপহৃত কিশোরীর মা বাদী হয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অপহরণের মামলা করেছেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ভাগনি সালমা ও খালু শিপন ওরফে সবুজের পরিবার নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সুমিলপাড়ার মাসুমের বাড়িতে ভাড়া থাকে। শিপন প্রায়ই সালমাকে নানা ধরনের অশ্লীল কথাবার্তা বলতো। আত্মীয়তার সূত্রে এতে কেউ কিছু মনে করতো না।

শিপনের স্ত্রী পোশাক কারখানায় চাকরি করার সুবাদে ভাগনি সালমাও চাকরির কথা বলে গত সোমবার (৮ জুলাই) সকাল ৮টায় বাসা থেকে বেরিয়ে যায়।

ওই দিন খালা (শিপনের স্ত্রী) বিকেল ৫টায় ফিরে আসলেও সালমা ফিরে আসেনি। পরিবারের লোকজন সালমার কথা জিজ্ঞেস করলে খালা জানায় সকালে কারখানায় যাওয়ার পথে গুরুত্বপূর্ণ কাগজ বাসায় রেখে এসেছে জানিয়ে বাসায় চলে আসে সালমা। একই দিন সকালে ঢাকায় চাকরির কথা বলে বাসা থেকে বেরিয়ে যায় খালু শিপনও।

রাতেও দুইজনের কেউই বাসায় ফিরে না আসায় শিপনের ব্যবহৃত মোবাইলে কল করে সালমার কথা জিজ্ঞেস করলে বিভিন্ন ধরনের কথা বলে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে পরিবারের লোকজন জানতে পারে ওই দিন শিপন তার ভাগনি সালমাকে ফুঁসলিয়ে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। পরে থানায় অভিযোগ দেয় সালামার পরিবার।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, অপহৃত সালমাকে সারুলিয়া থেকে উদ্ধার এবং অপহরণকারী খালু শিপন ওরফে সবুজকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শিপনের বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা করেছেন সালমার মা।

হোসেন চিশতী সিপলু/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :