মাদক ব্যবসায়ীর হাতুড়ি পেটায় ছেলের মৃত্যু, কাঁদছেন মা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৮:৪৪ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

ফরিদপুরে মাদক ব্যবসায়ীদের হাতুড়ি পেটায় নিহত যুবক ইমতিয়াজ শেখ রাব্বীর হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন পরিবারের সদস্যরা ও স্থানীয় এলাকাবাসী।

বুধবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে ফরিদপুর প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচি চলাকালে কান্নায় ভেঙে পড়েন নিহত যুবক রাব্বীর মা রানী বেগম। এ সময় রাব্বীর বোন চামেলি বেগম, জুই আক্তারসহ স্থানীয় প্রায় দুই শতাধিক এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন। কর্মসূচি চলাকালে হত্যাকাণ্ডে জড়িত কালা রাজন, হামজু, রাকিব, কানা তুষার ও তুরাগকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানান তারা।

মানববন্ধন চলাকালে রাব্বীর মা রানী বেগম বলেন, আমার সন্তান এলাকায় মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় নির্মমভাবে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী কালা রাজন, হামজু, রাকিব, কানা তুষার ও তুরাগ আমার ছেলেকে হত্যা করেছে। আমি আমার সন্তানের হত্যাকারীদের বিচার চাই।

তিনি বলেন, আমার স্বামী বেঁচে নেই। আমি অন্যের বাসায় কাজ করে ছেলেকে বড় করেছি। আমার বেঁচে থাকার অবলম্বনটুকু কেড়ে নিল তারা। আমি তাদের কঠিন শাস্তি চাই।

এর আগে শহরের আলীপুর এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে প্রেস ক্লাবের সামনে আসে স্থানীয় এলাকাবাসী। সেখানে কর্মসূচি পালন করে তারা।

নিহত রাব্বির মামা মো. বেলাল হোসেন বলেন, গত শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে শহরের আলীপুর এলাকার বখাটে রাজন, হামজু, রাকিব, কানা তুষার ও তুরাগসহ আরও কয়েকজন রাব্বীকে ধরে নিয়ে যায়। অম্বিকাপুরের একটি নির্জন স্থানে তাকে হাতুড়ি দিয়ে মারপিট করে গুরুতর অবস্থায় ফেলে যায় তারা।

পরে স্থানীয়দের সহায়তায় রাব্বীকে উদ্ধার করে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থান অবনতি হলে মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ইমতিয়াজ শেখ রাব্বী (২০) ফরিদপুর শহরের দক্ষিণ আলীপুর এলাকার মৃত শেখ নুরুর ছেলে। রাব্বী ফরিদপুর নিউ মার্কেটে তৈরি পোশাকের ব্যবসা করতেন।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশের এসআই মো. বেলাল হোসেন বলেন, রাব্বীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের মা রানী বেগম বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন।

বি কে সিকদার সজল/এএম/এমকেএইচ