চাল পাচার : বগুড়ায় আটক ৩ জনকে দুদকে হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৫:০৬ এএম, ৩১ মে ২০২০

বগুড়ার গাবতলীতে সরকারি খাদ্য গুদাম থেকে চাল পাচারের সময় আটক গুদাম কর্মকর্তাসহ তিনজনকে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কাছে হস্তান্তর করেছে থানা পুলিশ। এদিকে ঘটনা তদন্তে জেলা খাদ্য বিভাগের গঠিত তিন সদস্যের কমিটি তদন্ত কাজ শুরু করেছে।

শুক্রবার (২৯ মে) রাতে গাবতলী থানা থেকে গুদাম কর্মকতাসহ তিনজনকে দুদক বগুড়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করা হয়।

দুদকের কাছে হস্তান্তরকৃতরা হচ্ছেন গাবতলী উপজেলার সাবেকপাড়া সরকারি খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গাজী মো. শফিকুল ইসলাম, গুদামের নৈশপ্রহরী সাদেকুল ইসলাম ও চাল ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন।

জানা গেছে, শুক্রবার সকালে সাবেক পাড়া খাদ্য গুদাম থেকে ট্রাকে চাল লোড করার সময় পুলিশ ট্রাকসহ ৩০০ বস্তা চাল ও গুদাম কর্মকর্তা গাজী মো. শফিকুল ইসলামকে আটক করে। পরে গুদামের নৈশপ্রহরী সাদেকুল ইসলাম ও চাল কিনতে আসা ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেনকেও আটক করে পুলিশ। এই ঘটনায় গাবতলী উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুনার রশিদ আটক তিনজনের নামে গাবতলী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। কিন্তু থানা পুলিশ সেই অভিযোগ মামলা হিসেবে রেকর্ড না করে তাদেরকে দুদকের কাছে হস্তান্তর করে।

গাবতলী উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুনার রশিদ বলেন, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক ওই ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছেন। তদন্ত কমিটি শনিবার থেকে কাজ শুরু করেছে।

দুদক বগুড়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ওয়াহিদ মঞ্জুর সোহাগ বলেন, থানা পুলিশের কাছ থেকে অভিযুক্ত তিনজনকে বুঝে নেয়া হয়েছে। প্রাথমিক অনুসন্ধানে জব্দকৃত ৩০০ বস্তায় ১৫ মেট্রিক টন চাল সরকারি খাদ্য গুদাম থেকে আত্মসাৎ করার চেষ্টা করা হয়েছিল বলে প্রতীয়মান হয়েছে। এ ঘটনায় দুর্নীতি দমন আইনে তাদের নামে মামলা দায়ের করা হবে।

লিমন বাসার/এসআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]