স্বজনের খোঁজে জান্নাতুলকে নিয়ে ছুটছে পুলিশ

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি শ্রীপুর (গাজীপুর)
প্রকাশিত: ১২:৪১ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর আবদুল্লাহপুর এলাকায় ৬ বছর বয়সী শিশু জান্নাতুলকে কাঁদতে দেখে স্থানীয়রা ফোন দেন ৯৯৯ এ। সেখান থেকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে। পরে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে জান্নাতুলকে স্বজনদের ঠিকানায় পৌঁছে দিতে তার দেয়া তথ্যমতে সারারাত ঘুরেও খোঁজ মেলেনি স্বজনের। অনেকটা আশাহত হয়ে পুলিশ তাকে নিয়ে ফিরে আসে রাজধানীতে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উত্তরা পূর্ব থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাসিব আল-মামুন বলেন, ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে গতরাতে শিশুটিকে আব্দুল্লাহ্পুর থেকে উদ্ধার করা হয়। শিশুটির পরিবার গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা চৌরাস্তা এলাকায় বসবাস করে বলে শিশুটি জানায়। তার দেয়া তথ্যমতে থানার অপর পুলিশ সদস্য উপ-পরিদর্শক আরিফুল ইসলাম গাজীপুরের শ্রীপুরের মাওনা চৌরাস্তা ও এর আশপাশ এলাকার বিভিন্ন স্থানে খোঁজ চালান।

jagonews24

শিশুটি নিজের নাম জান্নাতুল, বাবার নাম জীবন ও মায়ের নাম নাজমা বেগম বলতে পারে। এছাড়াও তার নানার নাম আব্দুর সাত্তার, নানী রাশিদা বেগম ও সাগর নামে তার এক মামা আছে বলে জানিয়েছে। তার নানার বাড়ি নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা থানার বাঞ্জা গ্রামে বলে শিশুটি জানিয়েছে। এর বাইরে কোনো কিছু বলতে পারছে না।

তবে সারারাত ঘুরেও শিশুটির স্বজনদের কোনো সন্ধান না পাওয়ায় বুধবার বেলা ১১টার দিকে ফের তাকে নিয়ে রাজধানীর উদ্দেশে রওনা দেয়া হয়। সেখানে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম।

আরিফ আরও বলেন, ভুল করে হয়ত শিশুটি রাজধানীতে চলে এসেছে। উদ্ধারের পর তাকে তার স্বজনদের হাতে পৌঁছে দেয়া পুলিশের দায়িত্ব। সে দায়িত্ব থেকেই সারারাত বিভিন্ন স্থানে আমরা ঘুরেছি। তার স্বজনদের খুঁজে বের করে শিশুটিকে বাবা-মায়ের কাছে পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

শিহাব খান/এফএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]