উৎপাদনে তৃতীয় জেলা রাজবাড়ীতে পেঁয়াজের কেজি ৮০ টাকা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ১০:৫৩ এএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
ফাইল ছবি

রাজবাড়ীতে কমছে না পেঁয়াজের দাম। বাজারে আমদানি কম থাকার অজুহাতে খুচরা বাজারে আজও ৮০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। এছাড়া ছাল নষ্ট পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে প্রকারভেদে ৩০ থেকে ৫০ টাকা কেজিতে। শুক্রবার সকালে রাজবাড়ী জেলা শহরের বড় বাজার ঘুরে দেখা যায় এমন চিত্র।

এদিকে পেঁয়াজ উৎপাদনে রাজবাড়ী সারাদেশের মধ্যে তৃতীয় ও সারাদেশের প্রায় ১৪ শতাংশ পেঁয়াজ এ জেলায় উৎপাদিত হলেও ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ করে দেয়ায় সঙ্গে সঙ্গে কেজিতে দাম বেড়েছে ২০ থেকে ২৫ টাকা। যা চার দিন ধরে অব্যাহত রয়েছে। হঠাৎ দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় দিনমজুর ও মধ্য আয়ের মানুষসহ সাধারণ ক্রেতারা পড়েছেন বিপাকে।

অপরদিকে পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে বাজার মনিটরিং করছেন জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। তারা বলছেন স্থানীয়ভাবে কোনো ব্যবসায়ী কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়াতে চাইলে সুস্পষ্ট তথ্য ও প্রমাণের ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

জানা গেছে, রাজবাড়ীর বিভিন্ন স্থানের পেঁয়াজের আড়তে প্রকারভেদে ভালো পেঁয়াজ ৩ হাজার থেকে ৩৪শ ও ছাল নষ্ট পেঁয়াজ ১২শ থেকে ১৭শ টাকা মণ দরে বেচাকেনা হয়েছে। ফলে খুচরা ব্যবসায়ীরা ৭৫ থেকে ৮০ টাকায় ভালো পেঁয়াজ ও ৩০ থেকে ৫০ টাকায় ছাল নষ্ট পেঁয়াজ বিক্রি করছেন।

গত মৌসুমে রাজবাড়ীতে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ মেট্রিক টন পেঁয়াজ উৎপাদন হয়েছে। এরমধ্যে ব্যবহার উপযোগী ২ লাখ ৭৬ হাজার মেট্রিক টন এবং জনগণ হিসাবে রাজবাড়ীতে চাহিদা মাত্র ১৮ থেকে ২০ হাজার মেট্রিক টন। এখনও ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ পেঁয়াজ কৃষক ও ব্যবসায়ীদের ঘরে মজুদ আছে বলে ধারণা কৃষি কর্মকর্তাদের।

খুচরা ব্যবসায়ী মো. টোকন, আজাদ ফকিরসহ অনেকে জানান, আড়তে দাম বেশি, তাই খুচরা বাজারেও দাম বেশি। তারা ৩ হাজার থেকে ৩৪শ টাকায় ভালো ও ১২শ থেকে ১৭শ টাকা মণে ছাল নষ্ট পেঁয়াজ কিনছেন। আর খুচরা বিক্রি করছেন ভালোটা ৭৫ থেকে ৮০ টাকা ও ছাল নষ্ট পেঁয়াজ ৩০ থেকে ৫০ টাকা কেজি দরে।

রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগম জানান, পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে নিয়মিত বাজার মনিটরিং করছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তারা। স্থানীয়ভাবে কোনো ব্যবসায়ী পেঁয়াজের কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়াতে চাইলে সুস্পষ্ট তথ্য ও প্রমাণের ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

রুবেলুর রহমান/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]