আমার পুরো পরিবার করোনায় আক্রান্ত, তবু আপনাদের দেখতে এসেছি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৯:৪১ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০
মসজিদ বিস্ফোরণে নিহতদের পরিবারের মাঝে সহায়তার চেক বিতরণ করেন এমপি শামীম ওসমান

মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে যারা নিহত হয়েছেন তারা শহীদের দরজা পেয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

তিনি বলেন, কোরআন-হাদিস পড়ে যতটুকু জেনেছি সেটাই বললাম। ভুল-ত্রুটি হলে আল্লাহ মাফ করবেন। মসজিদে বিস্ফোরণে তাদের করুণ মৃত্যু হয়েছে ঠিকই তবে তারা জান্নাতের দরজায় পৌঁছে গেছেন। যারা শহীদ হয়েছেন তাদের পরিবারের পাশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আছেন এবং থাকবেন।

রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার পশ্চিম তল্লার বায়তুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত ও আহত ৩৫ পরিবারের সদস্যদের মাঝে চেক হস্তান্তরের সময় এসব কথা বলেন তিনি। হতাহতদের পরিবারপ্রতি পাঁচ লাখ টাকা করে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসব চেক বিতরণ করেন এমপি শামীম ওসমান।

শামীম ওসমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী নিজেও এতিম। তিনি স্বজন হারানোর বেদনা বোঝেন। তিনিও স্বজনদের হারিয়েছেন। একটি দুর্ঘটনা একটি হত্যা। দুটি ঘটনাই স্বজন হারানোর। প্রধানমন্ত্রী আপনাদের জন্য নামাজে বসে দোয়া করেন।

তিনি বলেন, যারা চলে গেছেন তারা ভাগ্যবান। আমাদের সামনে অনেক পরীক্ষা আছে। আমরা কীভাবে যাব। কি নিয়ে যাব। আমাদের মৃত্যুর ভয় থাকলে দেশে কোনো প্রশাসন লাগে না। না হলে আপনারাই বলেন করোনাকালে মানুষ চুরি করে কেন। স্বাস্থ্যখাতে এত দুর্নীতি কেন। ব্যবসা করা এক জিনিস আর ধান্দা করা আরেক জিনিস। এরা কি মানুষ?

শামীম ওসমান বলেন, মহামারি চলছে। এর মধ্যে কিছু লোক অপকর্ম করছে। এখন যেকোনো সেক্টরে অনিয়মই নিয়ম। সিস্টেমের ভেতর যারা আছে তারাই সিস্টেম ভাঙে। নারায়ণগঞ্জে বাড়িঘরের অনুমতি দেয়ার কথা রাজউকের। আর কে দিয়েছে।

তিনি বলেন, রহমউল্লাহ ইনস্টিটিউট ভাঙায় হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা ছিল। সেটার দায়িত্বে তো জেলা প্রশাসক ছিলেন। কিন্তু ভেঙে ফেলা হয়েছে। সবাই আইনের ভেতরে। কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নন। আমরা যারা রক্ষক তারা যদি ভক্ষক হই তাহলে কিন্তু পরবর্তী প্রজন্ম আইন মানবে না। এই অনিয়মকে নিয়মে পরিণত করা রাষ্ট্রের একার পক্ষে সম্ভব নয়। সবাই মিলে করতে হবে।

শামীম ওসমান বলেন, আমার পরিবারের বেশিরভাগ সদস্য করোনায় আক্রান্ত। তারপরও ছুটে এসেছি আপনাদের দেখতে। একটু দোয়া নিতে, প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া ভিক্ষা চাইতে। একটি দেশকে এগিয়ে নিতে একজন মানুষের প্রয়োজন হয়। তিনি হলেন শেখ হাসিনা।

নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক শাকিল আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শামীম বেপারী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশাসন মোস্তাফিজুর রহমান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই।

শাহাদাত হোসেন/এএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]