টঙ্গীতে ২৩ মামলার আসামির আত্মসমর্পণ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ১১:৩২ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২১

গাজীপুরের তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক কারবারি মাহবুবুর রহমান স্বপণ (৩৫) টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে পুলিশের কাছে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেন তিনি।

জানা গেছে, জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার বুলকার চর গ্রামের আব্বাস আলীর ছেলে স্বপনের বিরুদ্ধে গাজীপুরের টঙ্গী থানায় মাদক কারবার, হত্যাসহ বিভিন্ন অপরাধে অন্তত ২৩টি মামলা রয়েছে। এসব মামলায় সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়। পরোয়ানার আদেশপত্র টঙ্গী পশ্চিম থানায় এলে পুলিশ তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালায়। এরই মধ্যে স্বপন স্বেচ্ছায় সুস্থ জীবনে ফিরে আসতে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৫৭ নম্বার ওয়ার্ড কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিনের মাধ্যমে আত্মসমর্পণের আবেদন জানান।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিল গিয়াস উদ্দিনের কার্যালয়ে বিপুল সংখ্যক লোকের উপস্থিতিতে আসামি স্বপন টঙ্গী পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ আলমের কাছে আত্মসমর্পণ করেন। এ সময় তাকে ফুল দিয়ে বরণ করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

jagonews24.com

টঙ্গী পশ্চিম থানার ওসি আলম বলেন, তিনি গাজীপুরের টঙ্গী মাজার বস্তি এলাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে থাকতেন। সেখানেই তিনি মাদক কারবারসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়েন। টঙ্গী পশ্চিম থানায় তার বিরুদ্ধে ২৩টি মামলা রয়েছে। তিনি স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করলেও তার বিরুদ্ধে পৃথক ২৩টি গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকায় তাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে গাজীপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (টঙ্গী জোন) আশরাফুল ইসলান বলেন, আসামি স্বপন এখন অনুতপ্ত। আমাদের কাছে কথা দিয়েছে সে সুস্থ জীবনে ফিরে আসতে চায়। আইনি প্রক্রিয়া মেনে এবং স্বেচ্ছায় সুস্থ জীবনে ফিরে আসা ব্যক্তিদের নিয়ে বর্তমান সরকারের নানামুখী উদ্যোগের আলোকে আমরা চেষ্টা করে দেখবো তার জন্য কিছু করা যায় কি-না।

মো. আমিনুল ইসলাম/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]