জমি নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত ১, গুরুতর আহত ২

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর
প্রকাশিত: ০৫:২৯ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের গুলিতে ফরহাদ মল্লিক (২৭) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। বুধবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুরে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

নিহত ফরহাদ মল্লিক উপজেলার নাওডোবা ইউনিয়নের হাজী তাহের আলী মল্লিকের কান্দি গ্রামের তৈয়ব আলী মল্লিকের ছেলে।

এ ঘটনায় অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে তিনজনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন- রেজু মল্লিক (৩০), দিদার মুন্সী (২২) ও ইমামুল মল্লিক (২৫)।

ঘটনাস্থল থেকে সন্দেহভাজন পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, হাজী তাহের আলী মল্লিকের কান্দি গ্রামের কালা মিয়া মল্লিকের সঙ্গে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কাশেম ব্যাপারী কান্দীর জুলহাস ব্যাপারীর জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। বুধবার বেলা ১১টার দিকে ওই জমিতে এস্কেভেটর (ভেকু) দিয়ে মাটি কাটছিলেন কালা মিয়ার লোকজন। এ সময় জুলহাস ব্যাপারী বাধা দিলে দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে জুলহাস ব্যাপারীসহ তার লোকেরা শটগান দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে গুলি ছুড়তে থাকেন। এ সময় ফরহাদ মল্লিকের তলপেটে ও উরুতে গুলি লাগে। চিকিৎসার জন্য জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

আহত রেজু মল্লিক, দিদার মুন্সীর অবস্থা খারাপ দেখে তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

কালা মিয়া মল্লিকের পক্ষের লোক সাবেক মেম্বর জুলফিকার মল্লিক বলেন, ‘আমাদের আরও অনেকে আহত হয়েছেন। জুলহাস ব্যাপারী হত্যা মামলাসহ কয়েকটি মামলার আসামি। আমরা হত্যাকারীদের বিচার চাই।’

এদিকে, জুলহাস ব্যাপারীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম সরকার বলেন, ‘এ ঘটনায় একজন নিহত ও কয়েকজন আহত হয়েছেন। জড়িত থাকার সন্দেহে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা আছে। এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি।’

ছগির হোসেন/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]