৯৯৯-এ ফোন পেয়ে তিন সাংবাদিককে উদ্ধার করল পুলিশ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৪:৪২ পিএম, ১০ এপ্রিল ২০২১

ফরিদপুরের মধুখালীতে দাহমাসি জুট ইন্ডাস্ট্রিজ লি. এ সংবাদ সংগ্রহকালে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে স্থানীয় ৩ সংবাদিকের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তাদের ক্যামেরা ভাঙচুর এবং মারধর করা হয়। পরে ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে তাদের উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

সাংবাদিক সালেহীন সোয়াদ সাম্মী জানান, উপজেলার আড়পাড়া ইউনিয়নের রাজধরপুর গ্রামে অবস্থিত দাহমাসি জুট ইন্ডাস্ট্রিজ লিঃ কর্তৃপক্ষ বিনা নোটিশে মিলটি বন্ধ ঘোষণা করে। শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বিকেলে পাট ব্যবসায়ীদের পাওনার দাবীতে জুট মিল এলাকায় অসন্তোষের খবর শুনে সংবাদ সংগ্রহে যান চ্যানেল এস টেলিশিভনের মো. মফিজুর রহমান মুবিন, জয়যাত্রা টেলিশিভনের মেহেদী হাসান পলাশ ও দৈনিক ঢাকা প্রতিদিনের মধুখালী প্রতিনিধি সালেহীন সোয়াদ সাম্মী।

এ সময় জুটমিলের প্রধান ফটকে কর্তব্যরত পাহারাদার অসৌজন্যমূল আচরণ করেন। মিল কর্তৃপক্ষের লালিত সন্ত্রাসী বাহিনী সংবাদিকদের মিল অভ্যন্তরীণ একটি কক্ষে আবদ্ধ করে শারীরিকভাবে মারধর করে এবং ক্যামেরা ভাঙচুর ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এ সময় ছবদাল কবির (৩২), শামীম আহমেদ (৩০), রফিকুল ইসলাম (৪৫), সুজাউল আলম (৩৫), মো. কামাল (৩০), নিয়াজউদ্দিন (৫৫), আব্দুর রহমান রবিউলসহ(৩২) আরও ১০-১২ জন এ সন্ত্রসী কর্মকাণ্ডে অংশ নেন।

এ সময় কৌশলে সাংবাদিক সালেহীন সোয়াদ সাম্মী মধুখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোস্তফা মনোয়ার ও ৯৯৯-এ ফোন দিলে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে মধুখালী থানায় শুক্রবার রাতে সাংবাদিক মেহেদী হাসন পলাশ বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওসি (তদন্ত) রথীন্দ্র নাথ তরফদার বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এফএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]