এক ব্যক্তির কারণে পানিবন্দি ৩০ পরিবার

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল
প্রকাশিত: ০৯:৪৯ পিএম, ২৭ জুলাই ২০২১

ভারি বর্ষণ ও পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতা তৈরি হয়ে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার কুমরী গ্রামের ৩০টি পরিবার। এতে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছেন শিশু ও বয়স্করা। এ ব্যাপারে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন গ্রামবাসী।

জানা যায়, নিষ্কাশন ব্যবস্থা না থাকায় কয়েকদিনের বৃষ্টির পানি জমে উপজেলার কুমরী গ্রামের প্রায় ৩০টি পরিবার ৮-১০ দিন পানিবন্দি হয়ে আছেন। বসতঘর ও বাড়ির উঠানে জমে আছে হাঁটু পানি। প্রতিদিন পানি পেরিয়ে তাদের দৈনন্দিন কাজ করতে হচ্ছে। দীর্ঘ সময় পানিবন্দি থাকায় পরিবারগুলোর বিভিন্ন সদস্যর মধ্যে দেখা দিতে শুরু করেছে পানিবাহিত নানা রোগ।

ওই সব এলাকার ভুক্তভোগী বাসিন্দা ছিদ্দিক হোসেন ও কেসমত আলী জানান, দীর্ঘ একশ’ বছর যাবত যে জমি দিয়ে নিচু গ্রামের পানি নিষ্কাশন হতো সেই জায়গা বর্তমানে কুমরী গ্রামের আনার আলী মাটি দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন। ফলে বৃষ্টির পানি জমে তাদের বাড়িসহ গোটা এলাকায় উঠেছে। পানি নিষ্কাশনের জন্য জমির মালিককে অনেক অনুরোধ করেও কাজ হয়নি। তদবির করেও কেউ কিছু করতে পারবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আনার আলী।

কুমরী গ্রামের ইউপি সদস্য বজলুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘কুমরী গ্রামের পানি দীর্ঘ একশ’ বছর যাবত গ্রামের রাস্তার পাশ দিয়ে কুমরী বিলে গিয়ে পড়ত। বর্তমানে সেই জমি বিক্রি হয়ে মালিকানা পরিবর্তন হওয়ার পাশাপাশি দুর্ভোগে পড়েছেন কুমরীবাসী। কুমরী গ্রামের আনার আলী পানি নিষ্কাশনের সেই কালভার্টটি বন্ধ করে দেয়ার ফলে পানি নামতে পারছে না। ফলে ওই গ্রামের মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।’

jagonews24

তিনি আরও বলেন, ‘কালভার্ট দিয়ে পানি যাওয়ার ব্যাপারে এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে তাকে অনুরোধ করলেও তিনি কোনো কর্ণপাত করেননি।’

এ ব্যাপারে আনার আলীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ওই জমিটা আমার ব্যক্তিগত সম্পত্তি। ফলে ওই জমির ওপর দিয়ে পানি যেতে দেব না।’ এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্নের জবাব তিনি দেবেন না বলে মুঠোফোন কেটে দেন।

এ ব্যাপারে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইদুজ্জামান বলেন, ‘এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্স যাওয়ার কথা বলেছি। তদন্ত শেষে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করব।’

মো. জামাল হোসেন/জেডএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]