জিতলেন বোন, হারলেন ভাইয়েরা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৯:৩৭ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২২
বড়ভাই কাজী আনোয়ার, বোন সানজিদা রিয়া ও ছোটভাই কাজী মুনতাসির হোসেন

নোয়াখালী পৌরসভার নির্বাচনে একই পরিবারের প্রার্থী তিন ভাইবোনের মধ্যে মোহনা সানজিদা রিয়া সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে জয়লাভ করেছেন। অন্যদিকে মেয়র ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে তার দুইভাই পরাজিত হয়েছেন।

রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে নোয়াখালী জিলা স্কুল মিলনায়তনে জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ রবিউল আলম নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন।

এতে পৌরসভার ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ড থেকে বোন মোহনা সানজিদা রিয়া বলপেন প্রতীক নিয়ে চার হাজার ৪১ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন সুলতানা বেগম। আনারস প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন দুই হাজার ৬৮১ ভোট।

অন্যদিকে মেয়র পদে বড়ভাই কাজী আনোয়ার হোসেন (ভদ্র) জগ প্রতীকে পেয়েছেন ২২৭ ভোট এবং ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ছোটভাই কাজী মুনতাসির হোসেন (রোমিও) টেবিল ল্যাম্প প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন এক হাজার ১৮ ভোট।

নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে বর্তমান মেয়র সহিদ উল্লা খান সোহেল জয়লাভ করেছেন। তিনি পেয়েছেন ২৬ হাজার ৪০৮ ভোট। এছাড়া ৩নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে আমিন উল্যাহ সেলিম ডালিম প্রতীক নিয়ে জয়লাভ করেছেন। তিনি পেয়েছেন এক হাজার ১১৯ ভোট।

নোয়াখালী পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার মৃত কাজী আইয়ুব আলীর তিন সন্তান একসঙ্গে তিন পদে প্রার্থী হওয়ায় এলাকায় বেশ আলোচিত হয়।

বিজয়ী হওয়ার পর মোহনা সানজিদা রিয়া জাগো নিউজকে বলেন, আমি বাবার মতো সবাইকে সেবা দেওয়ার চেষ্টা করবো। আমার ভাইয়েরা পরাজিত হলেও জনগণে সুখে-দুঃখে পাশে থেকে কাজ করে যাবেন। আমাকে জয়ী করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।

রোববার (১৬ জানুয়ারি) নোয়াখালী পৌরসভার ৯ ওয়ার্ডের ৩৪ কেন্দ্রে একযোগে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এতে সাতজন মেয়র, ১৪ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও ৬৩ জন সাধারণ কাউন্সিলর প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

ইকবাল হোসেন মজনু/এসজে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]