পুত্রবধূর সাফল্যে আইভীর শাশুড়িকে মিষ্টিমুখ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ০৮:৩৬ এএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২২

তৃতীয়বারের মতো নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন রাজবাড়ীর পুত্রবধূ ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। তিনি রাজবাড়ী জেলা শহরের সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের পেছনের এলাকার নিউজিল্যান্ড প্রবাসী কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার কাজী আহসান হায়াতের স্ত্রী।

রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে সেলিনা হায়াৎ আইভীর বিজয়ের খবরে রাজবাড়ীতে তার শাশুড়িকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে মিষ্টিমুখ করিয়েছেন সুধিজন ও রাজনৈতিক নেতারা।

নির্বাচনে সেলিনা হায়াৎ আইভী আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৯৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। হাতি প্রতীক নিয়ে ৯২ হাজার ১৬৬ ভোট পেয়ে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন সদ্য বিএনপির বিভিন্ন পদ থেকে অব্যাহতি পাওয়া অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার।

হ্যাটট্রিক মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় রাজবাড়ীবাসী সেলিনা হায়াৎ আইভীর শ্বশুরবাড়িসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

পুত্রবধূর সাফল্যে আইভীর শাশুড়িকে মিষ্টিমুখ

এদিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে আইভী, তৈমুরের পাশাপাশি মেয়র পদে আরও পাঁচ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন।

জানা যায়, ১৯৯৫ সালের ১৫ নভেম্বর রাজবাড়ী জেলা শহরের সরকারি আদর্শ মহিলা কলেজের পেছনের এলাকার কাজী আহসান হায়াতের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন আইভী। আহসান হায়াৎ নিউজিল্যান্ড প্রবাসী একজন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার। তাদের সংসারে কাজী সাদমান হায়াৎ সীমান্ত ও কাজী সারদিল হায়াৎ অনন্ত নামে দুই ছেলে রয়েছে। আইভী তার বাবার রাজনৈতিক পরিচিতিকে সামনে রেখে রাজনৈতিক অঙ্গন ও সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডে সরব হন এবং ১৯৯৩ সালে তিনি নারায়ণগঞ্জ শহর আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদিকা নির্বাচিত হন। এরপর তিনি ২০০৩ সালে নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান ও পরবর্তীতে তিনি নারায়ণগঞ্জ সিটির মেয়র নির্বাচিত হন। এবারও তিনি আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।

রুবেলুর রহমান/এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]