রেলিং না দিয়েই খুলে দেওয়া হলো ওভার ব্রিজ

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি সাভার (ঢাকা)
প্রকাশিত: ০১:০৮ পিএম, ২৪ জানুয়ারি ২০২২

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে ধামরাইয়ের জয়পুরা এলাকায় ফুট ওভার ব্রিজটির কোনো পাশেই নেই রেলিং। তবুও পথচারীদের জন্য খুলে দিয়েছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। এতে করে প্রতিনিয়ত ঝুঁকি নিয়ে পার হতে হচ্ছে পথচারীদের।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের জয়পুরা বাস স্ট্যান্ডে সড়ক বিভাগ উঁচু করে তৈরি করেছে সড়ক বিভাজন। যার জন্য সড়ক দিয়ে পারাপার বন্ধ হয়ে যায়। তার ওপরই তৈরি করা হয়েছে একটি ফুট ওভার ব্রিজ। ব্রিজটি ব্যবহারের জন্য খুলে দিলেও তার চার পাশে ফাঁকা। নেই কোনো রেলিং। দিনে কিংবা রাতে সবসময়ই পারাপার হচ্ছে পথচারীরা। রেলিং না থাকায় কোথাও কোথাও সুতা দিয়ে ঘিরে রাখা হয়েছে।

ফুটওভার ব্রিজ ব্যবহার করা পঞ্চাশোর্ধ্ব আকবর মিয়ার সঙ্গে কথা হয়। তিনি বলেন, অনেক কষ্ট করে উঠলাম। একটু ধরার কিছু নাই। বুকটা ধড়ফড় করতাছে। ধরার হাতল (রেলিং) দিলে কী এমন হতো?

রেলিং না দিয়েই খুলে দেওয়া হলো ওভার ব্রিজ

পাশে থাকা আমিনুল নামের এক পোশাক শ্রমিক বলেন, রাতে যখন অফিস করে ফিরি তখন খুব ভয় লাগে। কোনো বাতি নেই, চারপাশ অন্ধকার। মনে হয় এই বুঝি পড়ে গেলাম।

এমন আতংক নিয়ে ফুটওভার ব্রিজটি ব্যবহার করছেন তারা। ব্রিজটির নিচের চা দোকানি আনিস বলেন, যখন স্কুলের বাচ্চারা দুষ্টুমি করতে করতে পার হয় তখনই ভয় থাকি। এই বুঝি কেউ পড়ে গেল। দ্রুত এটা ঠিক করা প্রয়োজন।

রেলিং না দিয়েই খুলে দেওয়া হলো ওভার ব্রিজ

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে মুঠোফোনে সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী গাউস উল হাসান মারুফ জাগো নিউজকে বলেন, ঠিকাদারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রেলিং বসানোর জন্য।

তবে প্রস্তুত না হতেই কেন খুলে দেওয়া হলো ওভার ব্রিজটি এমন প্রশ্ন তিনি এড়িয়ে যান। বলেন, ২-১ দিনের মধ্যে সব ঠিক হয়ে যাবে।

মাহফুজুর রহমান নিপু/এফএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]