রূপগঞ্জে মিলাদ মাহফিলে হামলা, গুলিবিদ্ধ ২

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)
প্রকাশিত: ১০:০৭ পিএম, ২৭ মে ২০২২

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে একটি মিলাদ মাহফিলের অনুষ্ঠানে তাণ্ডব চালিয়েছে একদল সন্ত্রাসী। হামলাকারীরা বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়েন। এতে দুজন গুলিবিদ্ধসহ ১২ জন আহত হয়েছেন জানা গেছে।

শুক্রবার (২৭ মে) দুপুরে উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের নাওড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, কায়েতপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের সঙ্গে নাওড়ার এলাকার সাবেক ইউপি মেম্বার মোশারফ ভুইয়ার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। শুক্রবার দুপুরে নাওড়া এলাকায় মুসা নামের এক ব্যক্তি তার বাড়িতে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেন। তিনি রফিকুল ইসলামকে দাওয়াত করেন। রফিকুল ইসলামকে দাওয়াত করায় মোশারফ ভুইয়ার ভাই আনোয়ার ভুইয়া মুসার সঙ্গে রাগারাগি করেন। এ সময় দুজনের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়।

পরে আনোয়ার হোসেন ও মোশরাফ হোসেন তার লোকজন নিয়ে সশস্ত্র অবস্থায় মুসার বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর চালান। এ সময় হামলাকারীরা বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়েন। হামলায় লিখন ও লিয়াকত নামের দুজন গুলিবিদ্ধ ও কাউসারসহ ১২ জন আহত হন। আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে হামলার সময় মোশারফ বাহিনীর লোকজন রফিকুল ইসলাম ও তার লোকজনকে অবরুদ্ধ করে রাখেন। এক পর্যায়ে চরম আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। সাধারণ মানুষ ভয়ে ছোটাছুটি শুরু করেন।

খবর পেয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদের নেতৃত্বে বিপুল পরিমাণ পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তারা অবরূদ্ধ অবস্থায় রফিকুল ইসলাম ও তার লোকজনকে উদ্ধার করেন।

এ সময় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে এ হামলা করেছে মোশা বাহিনী।’

এ বিষয়ে মোশারফ হোসেন বলেন, ‘রফিকসহ তার লোকজন হামলার উদ্দেশ্যে আমার বাড়ির দিকে এলে এলাকাবাসী তাদের ঘিরে ফেলেন।’

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অবরুদ্ধদের উদ্ধার করে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]