গোপনে বিয়ে করায় চিকিৎসক প্রেমিকের বাসায় প্রেমিকার আত্মহত্যা

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি সাভার
প্রকাশিত: ১২:১৪ এএম, ০৬ অক্টোবর ২০২২
আটক ফিরোজ আলম

না জানিয়ে বিয়ে করায় প্রেমিকের বাসায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন সাভার গণবিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় পুলিশ ওই চিকিৎসক প্রেমিককে আটক করেছে।

বুধবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে আশুলিয়ার ডেন্ডাবর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নুসরাত মিম ওরফে কুলসুম (২৬) গণবিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি বরিশালের বাবুগঞ্জ থানার দেহেরগতি গ্রামের মৃত শাহজাহান তালুকদারের মেয়ে।

আটক ফিরোজ আলম (৩১) ঢাকার দোহারের রাধানগর গ্রামের ওমর আলীর ছেলে। তিনি স্থানীয় একটি পোশাককারখানার মেডিকেল অফিসার।

পুলিশ জানিয়েছে, নুসরাত ও ফিরোজের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ছয় মাস আগে নুসরাতকে না জানিয়ে অন্যত্র বিয়ে করেন ফিরোজ। পরে নুসরাত বিষয়টি জানতে পারেন। এ নিয়ে ফিরোজের সঙ্গে তার মুঠোফোনে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে নুসরাত ডেন্ডাবর এলাকায় ফিরোজের ভাড়া ফ্ল্যাটে হাজির হন। এসময় দুজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে ফিরোজ বারান্দায় অবস্থান নেন। এ সময় নুসরাত বারান্দার দরজা বন্ধ করে ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ওড়না বেঁধে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়েন।

পরে ফিরোজ মুঠোফোনে পুলিশকে বিষয়টি জানান। পুলিশ এসে দরজা ভেঙে নুসরাতের মরদেহ উদ্ধার করে ও ফিরোজকে আটক করে।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবার আত্মহত্যার প্ররোচণায় আটক ফিরোজের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছে।

মাহফুজুর রহমান নিপু/ইএ

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।