দেড় কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া, শেরপুর পৌরসভার সংযোগ বিচ্ছিন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৯:২৩ পিএম, ২১ মার্চ ২০২৩

প্রায় দেড় কোটি টাকা বিল বকেয়া থাকায় বগুড়ার শেরপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি (নেসকো)।

মঙ্গলবার (২০ মার্চ) বিকেলে প্রথম শ্রেণির এই পৌরসভার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এতে ভোগান্তিতে পড়েন সেবাপ্রত্যাশীরা।

নেসকোর রাজশাহী বিভাগের রেভিনিউ অ্যাসুরেন্স বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শাখাওয়াত হোসেন তালুকদারের নেতৃত্বে এই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এসময় স্থানীয় বিদ্যুৎ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল জলিল, বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় রাতে আলো জ্বলেনি পৌরভবনে। বিশেষ করে সড়কবাতি বন্ধ থাকায় অন্ধকার নেমে আসে শহরজুড়ে। বন্ধ হয়ে গেছে পানি সরবরাহও।

নেসকোর বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল জলিল বলেন, বর্তমানে শেরপুর পৌরসভায় প্রতিমাসে প্রায় ২ লাখ ২০ হাজার টাকার বিদ্যুৎ ব্যবহার করা হয়। গত এক বছরে পৌরসভা কোনো বিল দেয়নি। এছাড়া আগের বিলও বকেয়া আছে। সবমিলে এ পর্যন্ত পৌরসভার কাছে ১ কোটি ৩৪ লাখ ৬০ হাজার ৯৬১ টাকা বাকি আছে। বারবার নোটিশ দিয়েও কোনো সাড়া না পাওয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে।

প্রথম শ্রেণির এই পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ডে প্রায় এক লাখ লোক বসবাস করেন। এছাড়া শহরটি আলোকিত করার জন্য দেড় হাজার সড়ক বাতি ও পানি সরবরাহের জন্য পাম্প রয়েছে। আকস্মিক বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় অফিসের কার্যক্রম স্থবির হয়ে যায়। অফিস চলাকালে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনসহ বিভিন্ন নাগরিক সেবা নিতে গিয়ে ভোগান্তিতে পড়েন বাসিন্দারা। এছাড়া রাতে শহরজুড়ে নেমে আসে অন্ধকার। চুরি ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে পৌরবাসী।

এদিকে পৌরসভার সাধারণ নাগরিকরা বলছেন, কর্তৃপক্ষ প্রতিবছর ট্রেড লাইসেন্স ও হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ায়। আমরা নিয়মিত সব পরিশোধ করলেও ন্যূনতম নাগরিক সুবিধা পাচ্ছি না। এরইমধ্যে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার কারণে শহরে চলাচলও অনিরাপদ হয়ে উঠবে।

জানতে চাইলে শেরপুর পৌরসভার মেয়র জানে আলম খোকা বলেন, এরইমধ্যে বিদ্যুৎ বিভাগের সঙ্গে কথা বলে সমঝোতায় এসেছি। বকেয়া বিল পরিশোধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। দ্রুত পুনরায় বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়া যাবে।

এমআরআর/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।