প্রত্যাশা পূরণের দিন আজ

মামুন আব্দুল্লাহ মামুন আব্দুল্লাহ
প্রকাশিত: ১০:০৩ এএম, ১৯ জানুয়ারি ২০১৮

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ক্রেতা-বিক্রেতা, ইজারাদার ও আয়োজকদের প্রত্যাশা পূরণের দিন আজ। মেলার ১৯তম দিন, মাসের তৃতীয় সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় আজ ব্যাপক লোকসমাগমের আশা করছেন সবাই।

আগের সব মেলায় তৃতীয় সপ্তাহেই রেকর্ড পরিমাণ বিক্রির নজির রয়েছে। কারণ এ সপ্তাহে সর্বোচ্চ ছাড় থাকে মেলায়। ক্রেতারাও এ সময়ের অপেক্ষায় থাকেন। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আজ ক্রেতা-বিক্রেতা ও উদ্যোক্তাদের প্রত্যাশা পূরণের দিন।

গত সপ্তাহে তীব্র শীতের কারণে দূরদূরান্ত থেকে অনেক ক্রেতা-দর্শনার্থী মেলায় আসতে পারেননি। গত কয়েকদিন ধরে শীতও সহনীয় পর্যায়ে এসেছে। মানুষেরও সমাগম বেড়েছে। সে হিসেবে আশা করা হচ্ছে আজ রেকর্ড সংখ্যক দর্শনার্থী মেলায় আসবেন।

media

মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থীরা যত আসবেন, বিক্রিও তত বাড়বে। যারা মেলার মাঠ ইজারা নিয়েছেন তাদের প্রত্যাশাও পূরণ হবে। তাদের মতে, দর্শনার্থী বাড়লে যে অর্থ দিয়ে মাঠ ইজারা নেয়া হয়েছিল সেটি উঠে আসবে। হয়তো লাভেরও মুখ দেখা যাবে।

ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে সম্পর্ক বাড়ানো এবং পণ্য প্রদর্শনীর মাধ্যমে ব্যবসায়িক সম্পর্ক গড়তে এ মেলার আয়োজন করে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি)। চলতি সপ্তাহে তাদেরও প্রত্যাশা পূরণ হবে বলে মনে করেন মেলা কর্তৃপক্ষ।

গতকাল বৃহস্পতিবার মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, আগের চেয়ে বেশি পরিমাণ ছাড় দিতে শুরু করেছে মেলায় অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলো। অনেকে প্রথম দিকে কোনো ছাড় দেয়নি। তারাও এখন মূল্যছাড় দেয়া শুরু করেছে।

মেলায় সবচেয়ে বেশি মূল্যছাড় দিচ্ছে ব্লেজারের স্টলগুলো। ‘আখেরি অফার’ নামে তারা বিশেষ অফার ছেড়েছে। আগে যে ব্লেজারে ১৮শ’ টাকার ট্যাগ লাগানো ছিল, এখন সেটি ১৩-১৪শ’ টাকায় নেমে এসেছে।

media

মেলায় আরামদায়ক ও ক্লাসিক লুকের বাহারি পোশাক স্যুট, কোট-ব্লেজার, শার্ট ও প্যান্ট এনেছে ‘ওকোড’ ব্র্যান্ড। মেলা উপলক্ষে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য বিশেষ মেগা অফারে রয়েছে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যছাড়। আগে তাদের পণ্যে কোনো ছাড় ছিল না। মেলার প্রধান ফটক দিয়ে পূর্ব পাশে ২০ নম্বর জেনারেল মিনি প্যাভিলিয়নে পাওয়া যাচ্ছে ওকোড ব্র্যান্ডের সব পণ্য।

পোশাক হিসেবে তরুণ-তরুণীদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে ব্লেজার। শীতে স্টাইলিশ আউটফিট হিসেবে ব্লেজারের কদরও বেশ। মেলা উপলক্ষে ছেলেদের ব্লেজারের মূল্য রাখা হচ্ছে ১৫শ’ টাকায় আর মেয়েদের ব্লেজার রাখা হচ্ছে ৯৫০ টাকায়।

এ বিষয়ে ওকোড প্যাভিলিয়নে দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা মোরশেদ আলম জানান, বিশ্বমানের ডিজাইন আর বাছাই করা কাপড়ের তৈরি স্মার্ট পুরুষের পছন্দের সব পোশাক এখানে আছে।

মেলায় ‘লেডি কুইন’ স্টলে গিয়ে দেখা যায়, লেডি কুইন ব্র্যান্ডের লিপিস্টিক বিক্রি হচ্ছে ২৫০ টাকায়। তবে মেলা উপলক্ষে একটি কিনলে আরেকটি ফ্রি পাচ্ছেন ক্রেতারা। ২৫০ টাকায় লিপগ্লোস কিনলে অপরিট দেয়া হচ্ছে ফ্রি। আইল্যাশ ও আইশ্যাডোর মূল্য রাখা হচ্ছে ৩০০ টাকা। সঙ্গে দেয়া হচ্ছে একটি ফ্রি।

media

লিপ লাইনারের মূল্য ৬০ টাকা, ফেস পাউডার ৩৫০ এবং নেইল পলিসের মূল্য রাখা হচ্ছে ১০০ টাকা। এসব পণ্য একটি কিনলে অপরটি ফ্রি দেয়া হচ্ছে। অন্য সব পণ্য যেমন- ডাব ও সানসিল্ক শ্যাম্পু এবং বিভিন্ন ব্র্যান্ডের বডি স্প্রে ও বাচ্চাদের খেলনা পণ্যে দেয়া হচ্ছে ১০ শতাংশ ছাড়।

এ বিষয়ে ‘লেডি কুইন’ স্টলের ইনচার্জ মোরশেদ জানান, মূলত পণ্যের প্রচারে মেলায় অংশগ্রহণ। মেলার বাইরে ঢাকায় আমাদের আরো ছয়টি শো-রুম রয়েছে। সেখানে কোনো ছাড় দেয়া হচ্ছে না।

মেলা ঘুরে দেখা যায়, পোশাক, গৃহস্থালি সামগ্রী ও খাদ্যপণ্যের প্রতি ক্রেতাদের আগ্রহ বেশ। পাশাপাশি ফার্নিচারের বেচাকেনাও জমে উঠেছে।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর এক কর্মকর্তা জানান, মেলার দিন যত যাচ্ছে, ভিড় তত বাড়ছে। অন্য সবদিনের তুলনায় ছুটির দিনে সবচেয়ে বেশি দর্শনার্থী আসেন। আজ দর্শনার্থীর সংখ্যা লক্ষাধিক ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছি।

একই আশা ব্যক্ত করেন মেলার মাঠ ইজারাদার প্রতিষ্ঠান মীর ব্রাদার্সের স্বত্বাধিকারী মীর শহিদুল আলম। তিনি বলেন, মেলা এখন শেষের দিকে বলা যায়। এখন যদি দর্শনার্থী না আসে তাহলে কবে আসবে? অতীত ইতিহাস বলে, মেলার তৃতীয় শুক্রবার ব্যাপক লোকসমাগম হয়। এবারও হবে।

এমএ/এমএআর/এআরএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :