আটকে থাকা অর্থ কাল থেকে ফেরত পাবেন কিউকম গ্রাহকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:২৭ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২২
ছবি: সংগৃহীত

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান কিউকম ডটকমের গ্রাহকদের আটকে থাকা টাকা ফেরত দেওয়া শুরু হচ্ছে। সোমবার (২৪ জানুয়ারি) থেকে এ টাকা পাবেন গ্রাহকরা। প্রাথমিকভাবে এদিন ২০ জনকে আনুষ্ঠানিকভাবে টাকা দেওয়া হবে। পরে পর্যায়ক্রমে পরিশোধ করা হবে অন্যান্য গ্রাহকদের পাওনা অর্থ।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ২৪ জানুয়ারি দুপুর ১২টায় মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ফস্টার পেমেন্ট গেটওয়ের কাছে কিউকমের গ্রাহকের আটকে থাকা টাকা আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হবে। টাকা হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব তপন কান্তি ঘোষ।

ডিজিটাল কমার্স সেলের উপ-সচিব মুহাম্মদ সাঈদ আলীর সই করা এক নোটিশে এ কথা জানানো হয়।

এতে বলা হয়, অতিরিক্ত বাণিজ্যসচিব (আমদানি ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য) এএইচএম সফিকুজ্জামানের সভাপতিত্বে ডিজিটাল কমার্স সংক্রান্ত কার্যক্রম ও ভোক্তা-বিক্রেতা অসন্তোষ নিয়ে টেকনিক্যাল কমিটির দ্বিতীয় সভা হবে। সভা শেষে টাকা হস্তান্তর করা হবে।

জানা গেছে, সিআইডির ক্লিয়ারেন্স অনুযায়ী কিউকমের গ্রাহকদের টাকা ফেরত দেওয়া হচ্ছে। প্রথমে ২০ জনকে টাকা দেওয়া হবে। এরপর বাকি ছয় হাজার ৭০১ জন গ্রাহক ফেরত পাবেন টাকা।

এ বিষয়ে রোববার (২৩ জানুয়ারি) বিকেলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এএইচএম সফিকুজ্জামান জাগো নিউজকে বলেন, গত বছরের অক্টোবর মাসে কিউকমসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের অ্যাকাউন্টের বিষয়ে একটি চিঠি দিয়েছিলো সিআইডি। আমরাও গত মঙ্গলবার অফিসিয়ালি চিঠি দিয়েছি। তারা ক্লিয়ারেন্স দিয়েছে। কাল ২০ গ্রাহককে ডেকে টাকা ফেরত দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে রিলিজ শুরু করবো। এরপর বাকিরা টাকা ফেরত পেতে থাকবেন।

গত ১০ জানুয়ারি ৭২১ গ্রাহকের ক্রয়াদেশের বিপরীতে ৫৯ কোটি টাকা ফেরতের বিষয়ে একমত হয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন দেয় কিউকম ও তাদের পেমেন্ট গেটওয়ে ফস্টার। এই পেমেন্ট গেটওয়ের কাছে কিউকম ডটকমের আটকে থাকা টাকার পরিমাণ ৩৯৭ কোটি টাকা।

এর আগে ২০১৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান কিউকম। বাজার মূল্যের চেয়ে কমদামে পণ্য দেওয়ার কথা বলে গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা নিয়েও পণ্য না দেওয়ার অভিযোগ ওঠে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে।

আইএইচআর/জেডএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]