অভিনয় ছাড়ছেন ববিতা


প্রকাশিত: ০৪:১৭ পিএম, ২৩ জুলাই ২০১৪

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অভিনেত্রী ববিতা আর অভিনয় না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বর্তমানে চলচ্চিত্রের মানহীনতার কারণেই বাধ্য হয়ে তাকে এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে বলে জানান প্রখ্যাত এই অভিনেত্রী। তবে মানসম্মত চলচ্চিত্র নির্মাণ হলে এবং এর গল্প ও চরিত্র পছন্দ হলে আবারো চলচ্চিত্রে অভিনয় করবেন বলে জানিয়েছেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। এবার পবিত্র হজ পালনে যাবেন বলেও জানান তিনি।

আমেরিকা ও কানাডা সফর শেষে দেড় মাস পর রোববার দেশে ফেরেন অভিনেত্রী ববিতা। আমেরিকায় প্রবাসী ভাইয়ের কাছে এক মাস ও কানাডায় একমাত্র পুত্র অনিক ইসলামের কাছে ১৫ দিন ছিলেন তিনি। অনিক কানাডায় ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে পড়াশোনা করছেন।

ববিতা বলেন, আগস্টে বড় বোন সুচন্দাকে নিয়ে হজ পালনে যাবো। বর্তমানে আর কোনো চলচ্চিত্রে অভিনয় করবো না। কারণ, এখন যে ধরনের গল্প এবং ডিজিটাল চলচ্চিত্রের নামে যেসব দুর্বল চলচ্চিত্র নির্মাণ হচ্ছে তাতে অভিনয় করে অর্জিত সুনাম নষ্ট করতে চাই না। এ কারণেই সাম্প্রতিক সময়ে যেসব চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম বিদেশ যাওয়ার আগে সেগুলোর সাইনিং মানি ফেরত দিয়েছি।

বড় বোন সুচন্দার স্বামী জহির রায়হানের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিনয়ে আসা ববিতা ১৯৭৩ সালে কলকাতার প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা সত্যজিৎ রায়ের `অশনি সংকেত` চলচ্চিত্রে অনঙ্গ বউ চরিত্রে অসাধারণ অভিনয় করে আন্তর্জাতিক অভিনেত্রীর খেতাব পান। পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও লাভ করেন। অভিনয়ের পাশাপাশি চলচ্চিত্র প্রযোজনাও করেন ববিতা। তার প্রযোজিত চলচ্চিত্র প্রখ্যাত ঔপন্যাসিক সেলিনা হোসেনের রচনায় `পোকা মাকড়ের ঘর বসতি` জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে। ববিতা প্রযোজিত পাকিস্তান ও নেপালের সঙ্গে যৌথ চলচ্চিত্র `লেডি স্মাগলার` বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হয়। এ ছাড়া ববিতার প্রযোজনায় ফুলশয্যা, লটারি, আগমন চলচ্চিত্রগুলো দর্শকনন্দিত হয়। প্রায় আড়াই শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন খ্যাতিমান এই অভিনেত্রী।

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]