সাতেও নেই পাঁচেও নেই আহমেদ শরীফ

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:১৬ পিএম, ১২ আগস্ট ২০১৮

বাংলা চলচ্চিত্রে আহমেদ শরীফ নামটিই একটি বিশেষণ। তিনি প্রায় আট শতাধিক বাংলা চলচিত্রে অভিনয় করেছেন। খলনায়ক হিসেবে সফল হলেও অনেক চলচ্চিত্রে ভিন্ন চরিত্রেও অভিনয় করেছেন তিনি। তার উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্য রয়েছে অরুণোদয়ের অগ্নিসাক্ষী, দেনমোহর (১৯৯৬), তিন কন্যা (১৯৮৫), বন্দুক প্রভৃতি।

আজ (১২ আগস্ট) তুমুল জনপ্রিয় এই অভিনেতার জন্মদিন। জাগো নিউজের পক্ষ থেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা তাকে।

১৯৪৩ সালে জন্মগ্রহণ করা এই অভিনেতা পার করেছেন জীবনের অনেকগুলো বছর। এখনো চলা ফেরায় তারুণ্য তার। কেমন কাটছে এই তারকার জন্মদিন? রোববার দুপুরে জাগো নিউজকে আহমেদ শরীফ বলেন, ‘নিজের মতো করেই কাটাচ্ছি আজকের দিনটি। আমি সাতেও নেই পাঁচেও নেই। নিজের মতো করে ভালো থাকার চেষ্টা করছি। অনেকেই ফোন করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। বেশ ভালোই লাগছে। চলচ্চিত্রে অভিনয় করে প্রচুর মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি। মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েই ভালোই কাটছে আমার দিনগুলো।’

আহমেদ শরীফ অভিনীত প্রথম ছবির নাম ‘অরুণোদয়ের অগ্নিসাক্ষী’। সুভাষ দত্ত পরিচালিত এ ছবিতে নায়ক চরিত্রে অভিনয় করে শুরুতেই দর্শকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছিলেন। তবে খলনায়ক হিসেবে ১৯৭৬ সালে তিনি প্রথম অভিনয় করেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর পরিচালনায় ‘বন্দুক’ ছবিতে। এ ছবিটি সুপার ডুপার হিট হয়। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি আহমেদ শরীফ টেলিভিশনের জন্য কিছু নাটক-টেলিফিল্ম নির্মাণ করেন। ২০০১ সালে প্রথম নির্মাণ করেন টেলিফিল্ম ‘ক্ষণিক বসন্ত’।

২০০৩ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশনের জন্য তিনি নির্মাণ করেন নাটক ‘ফুল ফুটে ফুল ঝরে’। অসংখ্য নাটকেও অভিনয় করেছেন এই অভিনেতা। ছোট পর্দায় অভিনয় করেও পেয়েছেন দর্শকপ্রিয়তা। এখন অভিনয় কম দেখা মেলে। তবে একেবারের থেমে যাননি তিনি। মাঝেমধ্যে টেলিভিশন নাটকে বিশেষ কোনো চরিত্রে হাজির হন।

২০১৬ সালেও তিনটি চলচ্চিত্রে দেখা মিলেছে তার। ছবিগুলো হল ‘রুদ্র দ্য গ্যাংস্টার’, ‘অঙ্গার’ ও ‘মাটির পরী’। আহমেদ শরীফ বর্তমানে উত্তরার চার নম্বর সেক্টরে বাস করছেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বাসায় অবসরে ক্রিকেট খেলা ও খবর দেখতে বেশি পছন্দ করেন।

আহমেদ শরীফ বলেন, ‘অবসরে বই পড়ি ও টিভি দেখি। বিশেষ করে ক্রিকেট খেলা আমি একবার দেখতে বসলে কোনো বল বা ব্যাট দেখা মিস দিই না। টানা খেলা দেখি। আর লেখকদের মধ্যে সমরেশ মজুমদার ও সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের বই পড়তে পছন্দ করি।’

স্ত্রী মেহরুন আহমেদ ও একমাত্র কন্যা আফিয়া মুবেশ্বীরাকে নিয়েই আহমেদ শরীফের পরিবার। আহমেদ শরীফ বর্তমানে উত্তরার চার নম্বর সেক্টরে থাকেন। আর অবসরে গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ায় সময় কাটাতে পছন্দ করেন।

এমএবি/এলএ/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :