ইভাংকার পোশাক তৈরির কারখানায় শ্রমিক শোষণের অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১৮ এএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

ভারতের হায়দরাবাদের একটি আন্তর্জাতিক শিল্পোদ্যোগী সম্মেলনের উদ্বোধন করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্টের মেয়ে এবং হোয়াইট হাউসের উপদেষ্টা ইভাংকা ট্রাম্প। কিন্তু সেখানে তাকে নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

ইভাংকা ট্রাম্প যেসব দামী পোশাক পরেন এবং যে ফ্যাশন সংস্থার পোশাক ব্যবহার করেন সেই সব দামী পোশাকের অনেকটাই ভারতে তৈরি বলে ধারণা করা হয়। কিন্তু সেসব পোশাকের কারখানায় শ্রমিকদের অধিকার কতটা সুরক্ষিত তা নিয়ে ইভাংকা ট্রাম্প ব্র্যান্ড বা হোয়াইট হাউস কোনও জবাব দিতে অস্বীকার করেছে।

ওয়াশিংটন পোস্টের এক খবরে জানানো হয়েছে, বিশ্বের প্রায় পঁচিশটি শ্রমঅধিকার সংগঠন তাদের কাছে এই সফরের প্রাক্কালে চিঠি লিখেও কোনও জবাব পায়নি। অন্যদিকে ট্রেড ইউনিয়নগুলির অভিযোগ ভারতে পোশাক শ্রমিকদের শোষণ চলছে বিরামহীনভাবে।

মঙ্গলবার হায়দরাবাদের এক সম্মেলনে তার ভাষণে ইভাংকা ট্রাম্প নানাভাবে বলার চেষ্টা করেছেন শিল্পোদ্যোগী হিসেবে নারীরা কতটা সম্ভাবনাময়। প্রধানমন্ত্রীকে নরেন্দ্র মোদিকে তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন, ভারতে শ্রমশক্তিতে লিঙ্গ বৈষম্য যদি অর্ধেকও কমানো যায়, তাহলে তিন বছরের মধ্যে দেশের অর্থনীতিতে দেড়শো কোটি ডলার প্রবৃদ্ধি হবে। কিন্তু সমালোচকরা প্রশ্ন তুলছেন, ইভাংকা নিজে যেসব ফ্যাশন সামগ্রী ব্যবহার করেন, সেগুলো তৈরি করে যেসব কোম্পানি সেখানে নারী শ্রমিকদের অধিকার কতটুকু?

লন্ডনভিত্তিক এথিক্যাল ট্রেড ইনিশিয়েটিভ বা ইটিআই ভারতে পোশাক-শ্রমিকদের নিয়ে বহুদিন ধরে কাজ করছে, তাদের মতে সেই পরিবেশ কিছুতেই ইভাংকা ট্রাম্পকে স্বস্তি দেবে না।

ইটিআইয়ের গবেষক মার্টিন বাটল বিবিসিকে বলেন, সবাইকে একধাঁচে ফেলা না গেলেও সার্বিকভাবে ভারতের পোশাক খাতে কাজের পরিবেশ খুব খারাপ, বিরাট একটা অসংগঠিত খাত, দালালদের রমরমা খুব, মালিকের সঙ্গে চুক্তি-সামাজিক বীমা কিংবা পেনশনের কোনও বালাই নেই।

ওয়াশিংটন পোস্ট এ সপ্তাহে তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক শ্রম সংগঠনগুলি ইভাংকা ট্রাম্প ব্র্যান্ডের কাছে এই সব প্রশ্নেরই জবাবদিহি চেয়েছিল। তারা সেটি শুধু উপেক্ষাই করেননি, এমন কী কোন কোন নির্মাতা সংস্থা ইভাংকার ফ্যাশন লাইন সরবরাহ করেন সেটাও জানাতে অস্বীকার করেছেন।

ভারতে বৃহত্তম ট্রেড ইউনিয়ন সিটুর নেতা ও এমপি তপন সেনও বলছিলেন মার্কিন ক্রেতা সংস্থাগুলো ভারতের পোশাক শ্রমিকদের সুরক্ষার সঙ্গে আপস করেন এই অভিযোগ অনেক পুরনো। তপন সেন বলেন, প্রধান সমস্যা ক্রেতা সংস্থাগুলো পরিদর্শনের নামে আসে ঠিকই, কিন্তু তাদের কোনো কাজই হয় না।

টিটিএন/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :