আশা জিইয়ে রাখছে উত্তর কোরিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২৬ এএম, ২৫ মে ২০১৮

উত্তর কোরিয়ার তরফ থেকে বলা হচ্ছে, তারা যে কোনো সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করতে চায়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠক বাতিলের ঘোষণা দেয়ার পরই পিয়ংইয়ংয়ের তরফ থেকে বৈঠকের জন্য তাদের ইচ্ছার কথা জানানো হয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিম কাই গুয়ান বলেন, ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত অত্যন্ত অনুশোচনীয়। তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাম্প্রতিক এক বিবৃতিতে উত্তর কোরিয়ার ‘ভয়ঙ্কর ক্ষোভ ও প্রকাশ্যে শত্রুতা’র কারণে ওই বৈঠক বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন। তার মতে, আগামী ১২ জুন সিঙ্গাপুরে পূর্ব নির্ধারিত বৈঠক করাটা যথাযথ হবে না।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনকে লেখা এক চিঠিতে ট্রাম্প বলেন, আপনার সঙ্গে সেখানে মিলিত হওয়ার জন্য আমি খুবই উন্মুখ ছিলাম। দুঃখজনক হলো, আপনার সাম্প্রতিক বিবৃতিতে প্রদর্শিত ‘জঘন্য ক্ষোভ এবং প্রকাশ্য শত্রুতা’র কারণে আমার মনে হয়েছে, দীর্ঘপরিকল্পিত এই বৈঠক এই মুহূর্তে যথাযথ হবে না।

দুই নেতার এই বৈঠককে ঘিরে অনেক জল্পনা কল্পনা তৈরি হয়েছিল। কারণ এটাই হতো কিম জং উনের সঙ্গে কোন মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রথম বৈঠক।

১২ জুন সিঙ্গাপুরে যে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল সে বিষয়ে খুব একটা স্পষ্ট তথ্য জানানো হয়নি। শুধু বৈঠকের নির্ধারিত সময় ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে ধারণা করা হচ্ছিল কোরীয় দ্বীপে উত্তেজনা কমিয়ে শান্তি স্থাপণে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি বন্ধের বিষয়ে আলোচনা করবেন ট্রাম্প এবং কিম।

এদিকে, ট্রাম্পের এমন ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা আগেই উত্তর কোরিয়া তাদের পুঙ্গে-রি পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষাকেন্দ্রে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সুড়ঙ্গ ধ্বংস করার কথা জানায়। কেন্দ্রটি পরিদর্শনে যাওয়া বিদেশি সাংবাদিকরাও বড় ধরনের বিস্ফোরণ দেখতে পাওয়ার কথা জানিয়েছেন। এই বৈঠককে কেন্দ্র করেই উত্তর কোরিয়া তাদের একমাত্র পারমাণবিক অস্ত্র কেন্দ্র ধ্বংস করার ঘোষণা দিয়েছিল। উত্তর কোরিয়ার তরফ থেকে বলা হচ্ছে তারা তাদের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেছে।

কিন্তু মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, উত্তর কোরিয়া যথেষ্ঠ বিশ্বাস অর্জন করতে সক্ষম হয়নি। তারা বিশ্বাস ভঙ্গের মতো বহু কাজ করেছে। তবে ট্রাম্প তার চিঠিতে বলেছেন, তিনি কিমের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে এখনও আশাবাদী।

কিমের উদ্দেশে লেখা চিঠিতে ট্রাম্প বলেন, আপনি আপনাদের পারমাণবিক সক্ষমতার ব্যাপারে কথা বলেছেন। কিন্তু আমাদেরগুলো এত বিশাল এবং শক্তিশালী যে আমি সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করি যেন কখনোই সেগুলোর ব্যবহার না করতে হয়।

ট্রাম্প বলেন, সারা বিশ্ব, বিশেষ করে উত্তর কোরিয়া, শান্তি, উন্নতি এবং সমৃদ্ধির একটি বিশাল সুযোগ হাতছাড়া করল। তবে আমি আপনার সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য অপেক্ষা করছি। আপনি যদি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই বৈঠক করার ব্যাপারে মনোভাব পাল্টে থাকেন, আমাকে ফোন করতে বা চিঠি লিখতে ইতস্তত করবেন না।

টিটিএন/এমএস