ভারতে কর্মস্থলে নারীদের জন্য নামাজের ব্যবস্থা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৩৮ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৯

ভারতের উত্তরপ্রদেশের নয়ডায় গত মাসে পার্কে নামাজ পড়া নিয়ে সরগরম হয়েছিল। নয়ডার ৫৮ নাম্বার সেক্টরের একটি পার্কে শুক্রবারের জুমআর নামাজ পড়া নিয়ে পুলিশ আপত্তি তুললে ব্যাপক বিতর্ক তৈরি হয়।

এবার সেই নয়ডারই একটি কোম্পানি অফিসে নারী কর্মীদের জন্য নামাজ পড়ার জন্য আলাদা ব্যবস্থা করেছে। এই সিদ্ধান্তে আনন্দ প্রকাশ করেছেন কোম্পানিটির নারী কর্মীরা।

গত মাসেই পার্কে বসে নামাজ পড়া নিয়ে এক নোটিশ জারি করে রাজ্য পুলিশ। এতে বলা হয়, জনসাধারাণের জন্য ব্যবহৃত এলাকায় কোনো ধর্মীয় কার্যকলাপ করা যাবে। এমনকি শুক্রবারের নামাজও পড়া যাবে না। কোনো সংস্থার কর্মী এই সিদ্ধান্ত না মানলে সেই সংস্থাকেই কাঠগড়ায় তোলা হবে।

নয়ডার ৫৮ নাম্বার সেক্টরের ছবি যখন এরকম, তখনই সম্প্রীতির নজির গড়ল সেক্টর ৬৪-র একটি পোশাক কারখানা। যেখানে প্রায় ৬০ জনেরও বেশি মুসলিম নারী কর্মী কাজ করেন। কাজের পাশাপাশি নামাজ পড়তে তাদের যাতে সমস্যা না হয়, সেজন্য কারখানার ছাদে আলাদা জায়গা করে দিয়েছেন মালিক।

কলকাতার বাংলা দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন বলছে, শুধু তাই নয়, নামাজ আদায়ের জন্য প্রত্যেক শুক্রবার বেলা ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত এক ঘণ্টার বিরতি দেয়া হয় মুসলিম কর্মীদের। পুরুষ ও নারীদের নামাজের জন্য কারখানার ছাদে দুটি আলাদা অংশ রয়েছে। মাদুর, পাপোশের ব্যবস্থা রয়েছে।

শুধু মুসলিম কর্মীদের জন্য নয়, হিন্দু কর্মীদের জন্যও কারখানায় নবরাত্রি এবং ভজনের আয়োজনও করা হয়। কারখানাটির মালিক বলেছেন, কর্মক্ষেত্রে যাতে কর্মীদের মন ভালো থাকে এবং হাসিখুশি থাকেন, সেজন্যই এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এসআইএস/জেআইএম