সিএএ-বিরোধী আন্দোলনে গিয়ে ২৫তম বিবাহবার্ষিকী উদযাপন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩৬ পিএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

দাম্পত্য জীবনের ২৫ বছরের পা দিয়েছেন বাংলার বিশিষ্ট নাট্যকার দম্পতি কৌশিক সেন এবং রেশমি সেন। নিজেদের ২৫তম বিবাহবার্ষিকী স্মরণীয় করে রাখতে এ দম্পতি যোগ দিয়েছেন ভারতে চলমান সিএএ এবং এনআরসির বিরুদ্ধে চলা আন্দোলনে।

৬ ফেব্রুয়ারি কৌশিক এবং রেশমি সেনের দাম্পত্যজীবন পা রাখল ২৫ বছরে। বিশেষ এ দিনটি একটু অন্যরকমভাবেই কাটানোর পরিকল্পনা করে ফেললেন দু’জনে। কোনোরকম রঙচঙে সেলিব্রেশন নয়, বরং একেবারে সাদামাটাভাবে কোনোরকম সেলিব্রিটি তকমা ছাড়াই শামিল হলেন শাহিনবাগের প্রতিবাদী ময়দানে। সাক্ষী থাকলেন এক প্রতিবাদী আন্দোলনের। কৌশিকের ভাষায়, ‘মনে হল যেন ইতিহাসকে স্পর্শ করলাম।’

১৪ ডিসেম্বর থেকেই শাহিনবাগের শাহিন স্কয়ারের একটি বাস স্ট‌্যান্ডে প্রতিবাদে বসেছেন স্থানীয়রা। প্রতিবাদী আন্দোলনের পুরোভাগে মহিলারা। কনকনে ঠান্ডাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ভিড় জমিয়েছে শিশু থেকে বুড়োরা। বিরতিহীন এ আন্দোলনে শামিল হয়ে মাত্রা যোগ করলেন কৌশিক সেন এবং রেশমি সেন।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে এর আগেও একাধিকবার সরব হয়েছেন কৌশিক। সরকারবিরোধী সুরও চড়িয়েছেন। এবার জীবনের বিশেষ দিনকে আরও বিশেষ করে তোলার জন্য অভিনব করার জন্য সস্ত্রীক পৌঁছে গেলেন শাহিনবাগের ময়দানে। দেখা করলেন প্রতিবাদী সুর তোলা মানুষগুলোর সঙ্গে।

এ প্রসঙ্গে কৌশিক বলেন, ‘বিয়ের ২৫ বছরে অনেক সামাজিক উত্থান-পতনই দেখেছি। এরকম একটা আন্দোলনেরও অংশ হতে চেয়েছিলাম। ওদের পাশে দাঁড়াতে চেয়েছিলাম। সেই ভাবনা থেকেই শাহিনবাগে আসা। যখন ঢুকলাম দেখলাম, এক শিখগুরু বক্তব্য রাখছেন। সব ধর্মের মানুষেরাই সেই বক্তব্য মন দিয়ে শুনছেন। সর্ব ধর্ম নির্বিশেষে এভাবে একজোটেও যে একটা প্রতিবাদী আন্দোলন হয়, তা বোধহয় চাক্ষুষ না করলে জীবনে একটা বড় কিছু মিস করতাম। আট থেকে আশি, সবাই যোগ দিয়েছেন এই আন্দোলনে। ৫-৬ বছরের বাচ্চারা জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে ঘুরছে। কেউ বা আবার মুখে তিরঙ্গা এঁকেছে। দুর্দান্ত একটা স্পিরিট। যে বা যারা ভারত বিদ্বেষী হবে, তারা অন্তত জাতীয় পতাকার রঙ এভাবে আঁকড়ে থাকতে পারে না।’

এফআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]