লাদাখ থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার টানেল বানাচ্ছে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১৫ এএম, ২১ অক্টোবর ২০২০

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীনের সেনার সঙ্গে সংঘর্ষ হওয়ার পর থেকেই সীমান্তবর্তী এলাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করার পরিকল্পনা নিয়েছে ভারত। এই বিষয়ে চীন তীব্র আপত্তি জানালেও কোনও গুরুত্ব দেয়নি নয়াদিল্লি।

চীনকে পাত্তা না দিয়েই গত ৩ অক্টোবর ১০ হাজার ফুট উচ্চতায় বিশ্বের উচ্চতম হাইওয়ে টানেলের উদ্বোধন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এবার জানা গেল লাদাখ থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার রাস্তার জন্য কমপক্ষে ১০টি টানেল তৈরি করা হচ্ছে।

বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন সূত্রে জানা গেছে, সীমান্তবর্তী এলাকাগুলিতে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করার জন্য ইতোমধ্যেই অনেক রাস্তা তৈরি করা হয়েছে। এবার লাদাখ থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত ভারতীয় সেনা ও সাধারণ মানুষের যানবাহন যাতে সারাবছর যাতায়াত করতে পারে তা নিশ্চিত করার চেষ্টা চলছে।

এজন্য ১০০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে কমপক্ষে ১০টি টানেল বানানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে কিছু কিছু জায়গার উচ্চতার ১৭ হাজারের ফুটের বেশি। ফলে কাজ করতে গিয়ে বিভিন্ন প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। তবে খুব তাড়াতাড়ি সমস্ত বাধা দূর করে টানেল তৈরির কাজ সম্পন্ন হবে।

জানা গেছে, গত ৩ তারিখ প্রধানমন্ত্রী যে অটল টানেলের উদ্বোধন করেছেন তার ফলে হিমাচল প্রদেশের মানালি থেকে লাদাখের লেহ পর্যন্ত সারাবছর যাতায়াত করা যাবে। কিন্তু, লাহুল ও স্পিতি এলাকায় ধারাবাহিকভাবে যোগাযোগ রাখতে লাদাখে আরও আটটি টানেল বানানোর প্রয়োজন। বেশ কয়েকটি টানেল তৈরি করতে হবে কাশ্মীরের সীমান্তবর্তী এলাকায় যাতায়াতের জন্যও।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, অটল টানেলের উদ্বোধনের পরে গত সপ্তাহে বর্ডার রোড অর্গানাইজেশনের তৈরি করা ৪৪টি ব্রিজ উদ্বোধন করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]