বয়ফ্রেন্ডের ফোনে অন্য মেয়ের কণ্ঠ, বাড়ি পুড়িয়ে দিলেন গার্লফ্রেন্ড!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৬ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০২২
প্রেমিকের পৈতৃক বাড়ির সোফায় আগুন ও অভিযুক্ত সেনাইডা ম্যারি সোতো/ ছবি: সংগৃহীত

কথায় আছে প্রকৃত ভালোবাসার ভাগ অন্য কাউকে দিতে চান না কেউই। মনের মানুষটিকে পেতে মানুষ কী না করে! আবার ভালোবাসার মানুষকে না পেলে বা তার সঙ্গে অন্য কাউকে দেখলে রাগের বশে কতো রকম পাগলামিই না করেন অনেকে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে এবার যা ঘটেছে, তা খুবই বিরল।

গত সপ্তাহের কোনো এক রাতে বয়ফ্রেন্ডের মোবাইলে কল দেন টেক্সাসের বেক্সার কাউন্টির সেনাইডা ম্যারি সোতো (২৩) নামের এক যুবতী। সেই কল রিসিভ করেন অন্য এক নারী। আর তাতেই হিংসা ও রাগের বশে প্রেমিকের পৈতৃক বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেন ম্যারি।

যদিও ম্যারির প্রেমিকের দাবি, অন্য কোনো নারীর সঙ্গে সম্পর্ক নেই তার। যে নারী কলটি রিসিভ করেছিলেন, তিনি তার খুব কাছের আত্মীয়।

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত সপ্তাহে ফেসটাইমে (ভিডিও কল দেওয়ার অ্যাপ) প্রেমিককে ভিডিও কল দেন ম্যারি। সে সময় অপর এক নারী কলটি রিসিভ করেন। প্রেমিকের মোবাইলে অন্য মেয়ের গলা শুনতে পেয়েই কল কেটে দেন ম্যারি।

ওই ঘটনার পরপরই প্রেমিককে উচিত শিক্ষা দেওয়ার পরিকল্পনা করেন ম্যারি। রাত ২টার দিকে হাজির হন প্রেমিকের বাবার বাড়িতে। কেউ না থাকার সুযোগ নিয়ে ঢুকে যান বাড়ির ভেতরে। একপর্যায়ে আগুন লাগিয়ে ড্রয়িং রুমে রাখা সোফায়। সেখান থেকে পুরো বাড়িতে আগুন লেগে যায়।

আরও জানা যায়, আগুন লাগানোর পর ভিডিও কলে প্রেমিককে সব দেখান ওই যুবতী। এমনকি ভিডিও কলে তিনি স্বীকার করেন, আগুন তিনিই লাগিয়েছেন।

পরে এ ঘটনায় প্রেমিকের পরিবারের পক্ষ থেকে করা মামলায় সোমবার (২১ নভেম্বর) গ্রেফতার করা হয় ম্যারিকে। বাড়িতে আগুন লাগানো ও জিনিসপত্র চুরির অভিযোগে ওই মামলা করা হয়।

প্রেমিকের পরিবারের অভিযোগ, বাড়ি থেকে মূল্যবান বেশ কিছু জিনিস হারিয়েছে। ওইসব জিনিস ম্যারিই চুরি করেছেন। পুরো বাড়িটি পুড়ে যাওয়ায় প্রায় ৫০ হাজার মার্কিন ডলারের ক্ষতি হয়েছেও বলে দাবি করে প্রেমিকের পরিবার।

সূত্র: এনবিসিডিএফডব্লিউ

এসএএইচ

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।