দেশে ভার্চুয়াল কোর্টে ১০ দিনে ২১ হাজার জামিন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০৯ এএম, ৩০ মে ২০২০

বৈশ্বিক মহামারি করোনা পরিস্থিতিতে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে সারাদেশের বিচারিক (নিম্ন) আদালতে গত ১০ দিনে ৩৩ হাজার ২৮৭টি আবেদনের শুনানি নিয়ে ২০ হাজার ৯৩৮ আসামির জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৯ মে) সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র ও স্পেশাল অফিসার ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এ তথ্য জানান।

এর আগে গত ১০ মে দেশের বিচারিক আদালতগুলোতে শুধু আসামিদের জামিন আবেদন শুনানির নির্দেশনা জারি করেন সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।

সেই নির্দেশ অনুসারে গত ১২ মে সারাদেশের বিচারিক আদালতে ১৪৪ জন, ১৩ মে ১ হাজার ১৩, ১৪ মে ১ হাজার ৮২১, ১৭ মে ৩ হাজার ৪৪৭, ১৮ মে ৩ হাজার ৬৩৩, ১৯ মে ৪ হাজার ৪২, ২০ মে ৪ হাজার ৪৮৪, ২৭ মে ৮৭৬ এবং ২৮ মে ১ হাজার ৪৭৭ জন আসামিকে জামিন দেয়া হয়।

জামিনের বিষয়ে গত ১০ মে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন বিজ্ঞপ্তি জারি করেন। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, 'বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবিলা ও এর ব্যাপক বিস্তার রোধে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আগামী ১৬ মে পর্যন্ত সব আদালতে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ছুটির সময়ে বাংলাদেশের প্রত্যেক জেলার জেলা ও দায়রা জজ, মহানগর এলাকার মহানগর দায়রা জজ, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক, বিশেষ জজ আদালতের বিচারক, সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক, দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক, জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এবং জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিজে অথবা তার নিয়ন্ত্রণাধীন এক বা একাধিক ম্যাজিস্ট্রেট দ্বারা আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ ২০২০ এবং উচ্চ আদালতের জারিকৃত বিশেষ প্র্যাকটিস নির্দেশনা’ অনুসরণ করে শুধু জামিন সংক্রান্ত বিষয়গুলো তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে নিষ্পত্তি করার উদ্দেশ্যে আদালতের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নির্দেশ দেয়া হলো।'

এ নির্দেশনা জারির পর ১১ মে থেকে ভার্চুয়াল আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়।

এফএইচ /জেডএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]