যেভাবে ১৫৫ কেজি ওজন কমিয়েছেন আদনান সামি

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩৯ এএম, ২৬ জুন ২০২২

পাকিস্তানের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আদনান সামি ২০০০ সালে ‘মুজকো ভি তু লিফ্ট কারা দে’ গানটির মাধ্যমে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। তার খ্যাতি বিশ্বজুড়েই। আদনান সামির ভক্তরা সবাই জানেন যে, তিনি এক সময় অতিরিক্ত ওজনে ভুগছিলেন।

মানসিক ও শারীরিক বিভিন্ন সমস্যার মধ্য দিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। অবশেষে ওজন কমানোর জন্য মনস্থির করেন। আর এখন তিনি এতোটাই ফিট যে অন্যরা তাকে দেখলে অনুপ্রাণীত হন।

নিজেকে আমূল পরিবর্তন করেছেন এই শিল্পী। ২২০ কেজিতে পৌঁছে গিয়েছিল তার ওজন। সঠিক ডায়েট ও শরীরচর্চার মাধ্যমে ১৫৫ কেজি ওজন ঝরিয়েছেন আদনান সামি।

jagonews24

২০০৫ সালে লিম্ফিডেমার জন্য অস্ত্রোপচার করা হয় তার। এজন্য ৩ মাস বিছানাসহ্যা ছিলেন তিনি। অতিরিক্ত বিশ্রামের কারণে তার ওজন আরও বেড়ে যায়। এক সময় শ্বাসকষ্ট শুরিু হয় তার।

চিকিৎসক জানান, তার শরীরের অতিরিক্ত চর্বি ফুসফুসে ধাক্কা দেওয়ায় শ্বাস নিতে অসুবিধা হয়। চিকিৎসকরা তাকে সতর্ক করেছিলেন যে তিনি যদি তার ওজন কম না করেন তবে তিনি ৬ মাস বাঁচবেন না।

এরপর পরিবার ও শুভাকাঙ্খীদের সমর্থন ও হিউস্টনের একজন পুষ্টিবিদের নির্দেশনায় ওজন কমানোর যাত্রা শুরু করেন আদনান।

jagonews24

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘ওজন কমানোর কাজটি ছিল ৮০ ভাগ মনস্তাত্ত্বিক ও মাত্র ২০ ভাগ শারীরিক।’ দৃঢ় সংকল্প ও আত্মত্যাগের মাধ্যমে আদনান সামি মাত্র ১৬ মাসে প্রায় ১৫৫ কেজি ওজন কমাতে সক্ষম হন।

আদনান সামির ডায়েট চার্ট

পুষ্টিবিদ জানান, আদনান একজন ইমোশনাল ইটার। এমন ব্যক্তিরা ভালো বা খারাপ যে কোনো অনুভূতিতেই খেতে পছন্দ করেন। এ কারণে প্রথমেই আদনানকে আবেগপূর্ণ খাওয়া থেকে বের করে আনেন তার পুষ্টিবিদ।
তাকে একটি কম-ক্যালোরিযুক্ত ডায়েট চার্ট দেওয়া হয়েছিল। যেখানে ছিল- সাদা ভাত, রুটি ও শাকসবজি। অস্বাস্থ্যকর জাঙ্ক ফুড একেবারেই খাওয়া বন্ধ করেন আদনান।

jagonews24

তাকে শুধু সালাদ, মাছ ও সেদ্ধ ডাল খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। তিনি দিন শুরু করতেন এক কাপ কম চিনি মেশানো চা দিয়ে। দুপুরের খাবারে তিনি শাকসবজি, সালাদ ও মাছ খেতেন।

রাতের খাবারে তিনি খেতেন ভাত বা রুটি ছাড়াই সাধারণ সেদ্ধ ডাল বা মুরগির মাংস। স্ন্যাকসের জন্য তাকে ঘরে তৈরি শুকনো পপকর্ন খেতে দেওয়া হত।

তার ব্যায়াম রুটিন

আদনান সামি স্থূল হওয়ায় প্রথম দিকে কোনো ধরনের শরীরচর্চাই তেমন করতে পারতেন না। খাবারের মাধ্যমেই প্রথম কয়েক মাসে তিনি ৪০ কেজি ওজন হারান। তারপর ট্রেডমিলে তিনি নিয়মিত হাঁটা ও হালকা ব্যায়াম করা শুরু করেন।

jagonews24

তার প্রশিক্ষক প্রশান্ত সাওয়ান্ত তাকে সপ্তাহে ৬ দিন শক্তি প্রশিক্ষণ ও কার্ডিও অনুশীলন করাতেন। গড়ে প্রতি মাসে আদনান প্রায় ১০ কেজি করে ওজন কমিয়েছেন। আর বর্তমানে তার ওজন ৬৫ কেজি।

তবে এখনো তিনি নিয়ম মেনেই জীবনযাপন করছেন। সামান্য ভুলেও যেন ওজন বেড়ে না যায় সেদিকে সতর্ক থাকেন আদনান সামি।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

জেএমএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]