কুর্মিটোলা হাসপাতালে ‘প্রস্তুতি ছাড়াই’ আইসোলেশন ইউনিট!

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল প্রকাশিত: ১২:৫৮ পিএম, ২৮ জানুয়ারি ২০২০
কুর্মিটোলা হাসপাতালে ‘প্রস্তুতি ছাড়াই’ আইসোলেশন ইউনিট!

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে সর্বোচ্চ প্রস্তুতির নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতর-সংস্থাগুলোও এ ব্যাপারে তাদের প্রস্তুতির কথা জানিয়ে আসছে। সেই প্রস্তুতিরই ধারাবাহিকতায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছাকাছি কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে খোলা হয়েছে ‘করোনাভাইরাস আইসোলেশন ইউনিট’। এটিকে রেফারেল হাসপাতাল হিসেবে নির্দিষ্ট করে আইসোলেশন ইউনিট এজন্য খোলা হয়েছে, যেন বিদেশ থেকে, বিশেষ করে চীন থেকে আগত কোনো যাত্রী ‘নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত’ বলে চিহ্নিত হলে তাকে দ্রুত এখানে এনে চিকিৎসা দেয়া যায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) নির্দেশনা অনুসারে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার পর তাকে আলাদাভাবে রেখে প্রশিক্ষিত চিকিৎসক ও নার্সসহ অন্যান্য সহযোগী স্বাস্থ্যকর্মীদের মাধ্যমে চিকিৎসাসেবা দিতে হবে। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি ছাড়াই তড়িঘড়ি করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ‘করোনাভাইরাস আইসোলেশন ইউনিট’ খোলা হয়েছে! করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী ভর্তি হলে তাদের চিকিৎসাসেবা দিতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক ডাক্তার, নার্স ও সহযোগী স্বাস্থ্যকর্মীর কিছুই নেই। যারা স্বাস্থ্যসেবা দেবেন তাদের নিজেদের নিরাপত্তার জন্য যে পার্সোনাল প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই) প্রয়োজন, তারও সরবরাহ নেই।

একটি দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) সকালে চীনের এক নাগরিক জ্বর ও সর্দি-কাশি নিয়ে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিতে যান। চিকিৎসকরা তার সঙ্গে কথা বলে জানতে পারেন, তিনি গত ২২ জানুয়ারি (বুধবার) চীন থেকে এসেছেন। সম্ভাব্য করোনাভাইরাসের রোগী হিসেবে তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য মহাখালীর স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়। নমুনা হিসেবে লালা দিয়ে বাসায় ফিরে যান ওই রোগী।

সরকারিভাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালকে রেফারেল হাসপাতাল হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে। এক্ষেত্রে তাদের প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামিলুর রেজা জাগো নিউজকে বলেন, ‘শুধু কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল নয়, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় রাজধানীসহ সারাদেশের মেডিকেল কলেজ ও সদর হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিট খোলার নির্দেশনা দিয়েছে। সে অনুসারে এ হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিট খোলা হয়েছে।’

আইসোলেশন ইউনিট পরিচালনার জন্য পর্যাপ্ত ডাক্তার, নার্স ও সহযোগী স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন কি-না? জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘নট অ্যাট অল। এমনিতেই এ হাসপাতালে বরাদ্দকৃত জনগণের চেয়ে কম সংখ্যক জনবল রয়েছে। করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার জন্য আলাদা কোনো ডাক্তার-নার্স নিয়োগ দেয়া হয়নি। তবে সীমিত জনবল থেকেই ম্যানেজ করে আইসোলেশন ইউনিট পরিচালনা করা হবে।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুসারে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার সাথে জড়িত ডাক্তার-নার্সসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য পার্সোনাল প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই) অত্যাবশ্যক। কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পর্যাপ্ত পিপিই রয়েছে কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বর্তমানে হাসপাতালে পিপিই সরবরাহ নেই। তবে আজ (মঙ্গলবার) প্রয়োজনীয় সংখ্যক পিপিই সরবরাহের জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরে চাহিদাপত্র পাঠানো হয়েছে।’

হাসপাতালে সম্ভাব্য কোনো করোনাভাইরাসের রোগী ভর্তি হয়েছে কি-না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত কোনো রোগী ভর্তি হয়নি। তবে আজ (মঙ্গলবার) সকালে একজন চীনা নাগরিক সর্দি-কাশির উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসা নিতে আসেন। চিকিৎসকরা তার সঙ্গে কথা বলে আইইডিসিআরের পাঠান। সেখানে তিনি নমুনা পরীক্ষা করতে দিয়েছেন।’

এদিকে, চীনে করোনাভাইরাস মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। সবশেষ দেশটিতে করোনাভাইরাসে ১০৬ জনের মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেছে। নতুন করে আরও এক হাজার ৩০০ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ফলে এখন পর্যন্ত মোট চার হাজার ১৯৩ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলো।

করোনাভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে সর্বোচ্চ প্রস্তুতির কথা জানিয়েছে সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার (২৭ জানুয়ারি) মন্ত্রিসভার বৈঠকেও এ ভাইরাস প্রতিরোধে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। সরকারের বিভিন্ন সংস্থা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে করণীয় বিষয়ে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালাচ্ছে। এরই মধ্যে বিমানবন্দর, নৌ ও স্থলবন্দর দিয়ে বিদেশ থেকে আগতদের করোনাভাইরাস স্ক্রিনিং (শনাক্ত) কার্যক্রম নেয়া হয়েছে। প্রস্তুত রাখা হয়েছে বিমানবন্দরের কোয়ারেন্টাইন (আক্রান্তকে আলাদাকরণ) ওয়ার্ড।

আগাম প্রস্তুতি হিসেবে সারাদেশের সরকারি হাসপাতালে অনতিবিলম্বে আইসোলেশন ইউনিট খোলার নির্দেশনা জারি করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। আপাতত দেশের আটটি বিভাগের সকল জেলা সদর ও মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ ইউনিট খোলা হবে।

এমইউ/আরএস/এইচএ/পিআর


করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

১৩,৪৮,২০৩
আক্রান্ত

৭৪,৭৯৫
মৃত

২,৮৬,৫১২
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ১২৩ ১২ ৩৩
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৩,৬৭,৬৫০ ১০,৯৪৩ ১৯,৮১০
স্পেন ১,৩৬,৬৭৫ ১৩,৩৪১ ৪০,৪৩৭
ইতালি ১,৩২,৫৪৭ ১৬,৫২৩ ২২,৮৩৭
জার্মানি ১,০৩,৩৭৫ ১,৮১০ ৩৬,০৮১
ফ্রান্স ৯৮,০১০ ৮,৯১১ ১৭,২৫০
চীন ৮১,৭৪০ ৩,৩৩১ ৭৭,১৬৭
ইরান ৬০,৫০০ ৩,৭৩৯ ২৪,২৩৬
যুক্তরাজ্য ৫১,৬০৮ ৫,৩৭৩ ১৩৫
১০ তুরস্ক ৩০,২১৭ ৬৪৯ ১,৩২৬
১১ সুইজারল্যান্ড ২১,৬৫৭ ৭৬৫ ৮,০৫৬
১২ বেলজিয়াম ২০,৮১৪ ১,৬৩২ ৩,৯৮৬
১৩ নেদারল্যান্ডস ১৮,৮০৩ ১,৮৬৭ ২৫০
১৪ কানাডা ১৬,৬৬৭ ৩২৩ ৩,৬১৬
১৫ অস্ট্রিয়া ১২,৩৩২ ২২০ ৩,৪৬৩
১৬ ব্রাজিল ১২,২৩২ ৫৬৬ ১২৭
১৭ পর্তুগাল ১১,৭৩০ ৩১১ ১৪০
১৮ দক্ষিণ কোরিয়া ১০,৩৩১ ১৯২ ৬,৬৯৪
১৯ ইসরায়েল ৯,০০৬ ৫৯ ৫৮৫
২০ সুইডেন ৭,২০৬ ৪৭৭ ২০৫
২১ রাশিয়া ৬,৩৪৩ ৪৭ ৪০৬
২২ অস্ট্রেলিয়া ৫,৮৯৫ ৪৬ ২,৪৩২
২৩ নরওয়ে ৫,৮৬৫ ৭৭ ৩২
২৪ আয়ারল্যান্ড ৫,৩৬৪ ১৭৪ ২৫
২৫ ভারত ৪,৮৫৮ ১৩৬ ৩৮২
২৬ চেক প্রজাতন্ত্র ৪,৮২৮ ৮০ ১২৭
২৭ চিলি ৪,৮১৫ ৩৭ ৭২৮
২৮ ডেনমার্ক ৪,৬৮১ ১৮৭ ১,৩৭৮
২৯ পোল্যান্ড ৪,৪১৩ ১০৭ ১৬২
৩০ রোমানিয়া ৪,০৫৭ ১৭৬ ৪০৬
৩১ জাপান ৩,৯০৬ ৯২ ৫৯২
৩২ পাকিস্তান ৩,৮৬৪ ৫৪ ৪২৯
৩৩ মালয়েশিয়া ৩,৭৯৩ ৬২ ১,২৪১
৩৪ ইকুয়েডর ৩,৭৪৭ ১৯১ ১০০
৩৫ ফিলিপাইন ৩,৬৬০ ১৬৩ ৭৩
৩৬ লুক্সেমবার্গ ২,৮৪৩ ৪১ ৫০০
৩৭ সৌদি আরব ২,৬০৫ ৩৮ ৫৫১
৩৮ পেরু ২,৫৬১ ৯২ ৯৯৭
৩৯ ইন্দোনেশিয়া ২,৪৯১ ২০৯ ১৯২
৪০ মেক্সিকো ২,৪৩৯ ১২৫ ৬৩৩
৪১ ফিনল্যাণ্ড ২,৩০৮ ২৭ ৩০০
৪২ থাইল্যান্ড ২,২৫৮ ২৭ ৮২৪
৪৩ সার্বিয়া ২,২০০ ৫৮ ১১৮
৪৪ পানামা ২,১০০ ৫৫ ১৪
৪৫ সংযুক্ত আরব আমিরাত ২,০৭৬ ১১ ১৬৭
৪৬ কাতার ১,৮৩২ ১৩১
৪৭ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ১,৮২৮ ৮৬ ৩৩
৪৮ গ্রীস ১,৭৫৫ ৭৯ ২৬৯
৪৯ দক্ষিণ আফ্রিকা ১,৬৮৬ ১২ ৯৫
৫০ আর্জেন্টিনা ১,৬২৮ ৫৩ ৩২৫
৫১ কলম্বিয়া ১,৫৭৯ ৪৬ ৮৮
৫২ আইসল্যান্ড ১,৫৬২ ৪৬০
৫৩ ইউক্রেন ১,৪৬২ ৪৫ ২৮
৫৪ আলজেরিয়া ১,৪২৩ ১৭৩ ৯০
৫৫ সিঙ্গাপুর ১,৩৭৫ ৩৪৪
৫৬ মিসর ১,৩২২ ৮৫ ২৫৯
৫৭ ক্রোয়েশিয়া ১,২২২ ১৬ ১৩০
৫৮ নিউজিল্যান্ড ১,১৬০ ২৪১
৫৯ মরক্কো ১,১২০ ৮০ ৮১
৬০ এস্তোনিয়া ১,১০৮ ১৯ ৬২
৬১ ইরাক ১,০৩১ ৬৪ ৩৪৪
৬২ স্লোভেনিয়া ১,০২১ ৩০ ১০২
৬৩ মলদোভা ৯৬৫ ১৯ ৩৭
৬৪ হংকং ৯১৫ ২১৬
৬৫ লিথুনিয়া ৮৮০ ১৫
৬৬ আর্মেনিয়া ৮৩৩ ৬২
৬৭ হাঙ্গেরি ৮১৭ ৪৭ ৭১
৬৮ বাহরাইন ৭৫৬ ৪৫৮
৬৯ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ৭১৬ ৩০ ৬৮
৭০ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১১ ৬১৯
৭১ বেলারুশ ৭০০ ১৩ ৫৩
৭২ কাজাখস্তান ৬৭০ ৪৬
৭৩ কুয়েত ৬৬৫ ১০৩
৭৪ ক্যামেরুন ৬৫৮ ১৭
৭৫ আজারবাইজান ৬৪১ ৪৪
৭৬ তিউনিশিয়া ৫৯৬ ২২
৭৭ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ৫৭০ ২৩ ৩০
৭৮ বুলগেরিয়া ৫৬৫ ২২ ৪২
৭৯ লাটভিয়া ৫৪২ ১৬
৮০ লেবানন ৫৪১ ১৯ ৬০
৮১ স্লোভাকিয়া ৫৩৪
৮২ এনডোরা ৫২৫ ২১ ৩১
৮৩ উজবেকিস্তান ৪৭২ ৩০
৮৪ কোস্টারিকা ৪৬৭ ১৮
৮৫ সাইপ্রাস ৪৬৫ ৪৫
৮৬ আফগানিস্তান ৪২৩ ১১ ১৮
৮৭ উরুগুয়ে ৪১৫ ১২৩
৮৮ আলবেনিয়া ৩৭৭ ২১ ১১৬
৮৯ তাইওয়ান ৩৭৬ ৬১
৯০ ওমান ৩৭১ ৬৭
৯১ বুর্কিনা ফাঁসো ৩৬৪ ১৮ ১০৮
৯২ কিউবা ৩৬৩ ১৮
৯৩ রিইউনিয়ন ৩৪৯ ৪০
৯৪ জর্ডান ৩৪৯ ১২৬
৯৫ চ্যানেল আইল্যান্ড ৩২৩ ২৭
৯৬ আইভরি কোস্ট ৩২৩ ৪১
৯৭ হন্ডুরাস ৩০৫ ২২
৯৮ ঘানা ২৮৭ ৩১
৯৯ সান ম্যারিনো ২৭৭ ৩২ ৩৫
১০০ ফিলিস্তিন ২৫৪ ২৪
১০১ নাইজার ২৫৩ ১০ ২৬
১০২ ভিয়েতনাম ২৪৫ ১০৬
১০৩ মরিশাস ২৪৪
১০৪ মালটা ২৪১
১০৫ মন্টিনিগ্রো ২৩৯
১০৬ নাইজেরিয়া ২৩৮ ৩৫
১০৭ কিরগিজস্তান ২২৮ ৩৩
১০৮ সেনেগাল ২২৬ ৯২
১০৯ জর্জিয়া ১৯৫ ৩৯
১১০ বলিভিয়া ১৯৪ ১৪
১১১ ফারে আইল্যান্ড ১৮৪ ১২৯
১১২ শ্রীলংকা ১৮০ ৩৮
১১৩ ভেনেজুয়েলা ১৬৫ ৬৫
১১৪ মায়োত্তে ১৬৪ ১৫
১১৫ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ১৬১ ১৮
১১৬ কেনিয়া ১৫৮
১১৭ মার্টিনিক ১৫১ ৫০
১১৮ গুয়াদেলৌপ ১৩৯ ৩১
১১৯ আইল অফ ম্যান ১৩৯ ৫৫
১২০ ব্রুনাই ১৩৫ ৮২
১২১ গিনি ১২৮
১২২ কম্বোডিয়া ১১৫ ৫৮
১২৩ প্যারাগুয়ে ১১৫ ১৫
১২৪ জিব্রাল্টার ১০৯ ৫২
১২৫ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ১০৫
১২৬ রুয়ান্ডা ১০৫
১২৭ জিবুতি ৯০
১২৮ মাদাগাস্কার ৮২
১২৯ এল সালভাদর ৭৮
১৩০ লিচেনস্টেইন ৭৭ ৫৫
১৩১ মোনাকো ৭৭
১৩২ গুয়াতেমালা ৭৪ ১৭
১৩৩ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ৭২ ৩৪
১৩৪ আরুবা ৭১
১৩৫ বার্বাডোস ৬০
১৩৬ জ্যামাইকা ৫৯
১৩৭ টোগো ৫৮ ২৩
১৩৮ উগান্ডা ৫২
১৩৯ মালি ৪৭
১৪০ কঙ্গো ৪৫
১৪১ ম্যাকাও ৪৪ ১০
১৪২ ইথিওপিয়া ৪৪
১৪৩ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ৪২
১৪৪ জাম্বিয়া ৩৯
১৪৫ বারমুডা ৩৯ ১৭
১৪৬ কেম্যান আইল্যান্ড ৩৯
১৪৭ সিন্ট মার্টেন ৩৭
১৪৮ বাহামা ৩৩
১৪৯ সেন্ট মার্টিন ৩২
১৫০ গায়ানা ৩১
১৫১ ইরিত্রিয়া ৩১
১৫২ বেনিন ২৬
১৫৩ গ্যাবন ২৪
১৫৪ তানজানিয়া ২৪
১৫৫ হাইতি ২৪
১৫৬ মায়ানমার ২২
১৫৭ মালদ্বীপ ১৯ ১৩
১৫৮ লিবিয়া ১৯
১৫৯ সিরিয়া ১৯
১৬০ নিউ ক্যালেডোনিয়া ১৮
১৬১ গিনি বিসাউ ১৮
১৬২ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ১৬
১৬৩ নামিবিয়া ১৬
১৬৪ অ্যাঙ্গোলা ১৬
১৬৫ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ১৫
১৬৬ ডোমিনিকা ১৫
১৬৭ মঙ্গোলিয়া ১৫
১৬৮ ফিজি ১৫
১৬৯ সেন্ট লুসিয়া ১৪
১৭০ সুদান ১৪
১৭১ লাইবেরিয়া ১৪
১৭২ কিউরাসাও ১৩
১৭৩ গ্রেনাডা ১২
১৭৪ লাওস ১২
১৭৫ গ্রীনল্যাণ্ড ১১
১৭৬ সিসিলি ১১
১৭৭ সুরিনাম ১০
১৭৮ মোজাম্বিক ১০
১৭৯ জিম্বাবুয়ে ১০
১৮০ সেন্ট কিটস ও নেভিস ১০
১৮১ ইসওয়াতিনি ১০
১৮২ জান্ডাম (জাহাজ)
১৮৩ চাদ
১৮৪ নেপাল
১৮৫ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক
১৮৬ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড
১৮৭ ভ্যাটিকান সিটি
১৮৮ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড
১৮৯ সোমালিয়া
১৯০ কেপ ভার্দে
১৯১ বেলিজ
১৯২ মৌরিতানিয়া
১৯৩ মন্টসেরাট
১৯৪ সেন্ট বারথেলিমি
১৯৫ নিকারাগুয়া
১৯৬ বতসোয়ানা
১৯৭ সিয়েরা লিওন
১৯৮ ভুটান
১৯৯ মালাউই
২০০ গাম্বিয়া
২০১ পশ্চিম সাহারা
২০২
২০৩ এ্যাঙ্গুইলা
২০৪ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ
২০৫ বুরুন্ডি
২০৬ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস
২০৭ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড
২০৮ পাপুয়া নিউ গিনি
২০৯ পূর্ব তিমুর
২১০ দক্ষিণ সুদান
২১১ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।

টাইমলাইন

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ - ১০:৩৪পিএম
৩১ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৮:৩৪পিএম
৩১ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৭:৪৫পিএম
৩১ জানুয়ারি, ২০২০ - ০২:১২পিএম
৩১ জানুয়ারি, ২০২০ - ১২:০৪পিএম
৩১ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:৩৭এএম
৩১ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৬:১২এএম
৩১ জানুয়ারি, ২০২০ - ০২:৪৭এএম
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৭:০৬পিএম
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ - ০২:৩৩পিএম
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ - ০১:৪৯পিএম
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:২৬এএম
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৮:৫৮এএম
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৫:৩৭এএম
৩০ জানুয়ারি, ২০২০ - ১২:৪৬এএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:৪৬পিএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৮:০২পিএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৪:০০পিএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ০১:৫৫পিএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ০১:৩৫পিএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ১২:৫৯পিএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ১১:০৪এএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ১০:৩৬এএম
২৯ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৮:২০এএম
২৮ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৬:১৩পিএম
২৮ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৪:০৬পিএম
২৮ জানুয়ারি, ২০২০ - ০২:৪৯পিএম
২৮ জানুয়ারি, ২০২০ - ১২:৫২পিএম
২৮ জানুয়ারি, ২০২০ - ১২:১৯পিএম
২৮ জানুয়ারি, ২০২০ - ১১:১৬এএম
২৮ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৮:২৮এএম
২৭ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:০৯পিএম
২৭ জানুয়ারি, ২০২০ - ১২:৩৫পিএম
২৭ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:৪৫এএম
২৬ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৭:০৯পিএম
২৬ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৬:১৭পিএম
২৬ জানুয়ারি, ২০২০ - ০২:৩৮পিএম
২৬ জানুয়ারি, ২০২০ - ০১:১৭পিএম
২৬ জানুয়ারি, ২০২০ - ১০:৪৯এএম
২৬ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:৩৩এএম
২৫ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:৪০পিএম
২৫ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৬:২৯পিএম
২৫ জানুয়ারি, ২০২০ - ০২:০২পিএম
২৫ জানুয়ারি, ২০২০ - ০১:৫৫পিএম
২৫ জানুয়ারি, ২০২০ - ১১:৪৯এএম
২৪ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৮:২৪পিএম
২৪ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৭:০৬পিএম
২৩ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৪:৪৭পিএম
২৩ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৮:৪৬এএম
২২ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:৪৪পিএম
২২ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:২৩এএম
২০ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৮:৫৪এএম
১৮ জানুয়ারি, ২০২০ - ০৯:২৯এএম

সর্বশেষ - স্বাস্থ্য

জাগো নিউজে সর্বশেষ

জাগো নিউজে জনপ্রিয়