ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক গ্রেফতারে স্বস্তি কাদেরের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১০ পিএম, ০৮ জানুয়ারি ২০২০

> প্রধানমন্ত্রীর সত্য ভাষণ বিএনপির গাত্রদাহের কারণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক গ্রেফতার হওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, ‘এটা স্বস্তির খবর।’

বুধবার (৮ জানুয়ারি) সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে মন্ত্রণালয়ের উন্নয়ন কার্যক্রম এবং সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ স্বস্তি প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যে মেয়েটি ধর্ষণের শিকার হলো, সর্বাত্মক অভিযান চালিয়ে সে ধর্ষককেও গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও কথা হয়তো আসবে। এর মোটিভ কী, এর পুরোপুরি এই মুহূর্তে জানা যায়নি। তবে এ মুহূর্তে সবার স্বস্তির বিষয় হচ্ছে, যে ঘটনার সঙ্গে যে জড়িত সে গ্রেফতার হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল জাতির উদ্দেশে যে ভাষণ দিয়েছেন এ ভাষণে জাতীর আশা পূরণ হয়নি- বিএনপির এমন মন্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যে বিষয়গুলো বলা দরকার যেমন- সারাবিশ্বে দুর্নীতি আছে, আমাদের দেশেও আছে। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন- দুর্নীতিবাজ যেই হোক, যত শক্তিশালী হোক তাকে ছাড় দেয়া হবে না। জাতির কাছে এ অঙ্গীকার করেছেন। তিনি যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন এটা অব্যহত থাকবে। তিনি অঙ্গীকার করেছেন, মানুষের হক যেনো কেউ কেড়ে নিতে না পারে।’

‘তিনি (প্রধানমন্ত্রী) যে কথাটা বলেছিলেন, আমি আপনাদের হয়ে থাকতে চাই। তার মানে আপনাদের আশা-আকাঙ্ক্ষার সঙ্গে আমি আছি। বাংলাদেশ উন্নয়নের মহাসড়কে, আমার ওপর ভরসা রাখেন। তিনি এটাও বলেছেন যে, মুখরোচক প্রতিশ্রুতিতে আমি বিশ্বাসী নই। প্রধান লক্ষ্য তরুণদের কর্মসংস্থান। সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে আমাদের যা করণীয় তা করে যাব।’ উল্লেখ করেন কাদের।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘দেড় কোটি কর্মসংস্থানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। কাজেই ভবিষ্যৎ সম্বন্ধে প্রধানমন্ত্রী কিছু বলেননি এ কথাটা ঠিক না। আবার এ কথাও তিনি বলেছেন, ভুলভ্রান্তি আর অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে সামনে পথ চলবেন। তার মানে আমাদের বড় বড় সাফল্যের পাশাপাশি ব্যর্থতা এবং ভুলত্রুটিও আছে। এ ভুলত্রুটি থেকে শিক্ষা নিয়ে নতুন করে পথচলার অঙ্গীকারও প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে দিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘এডিস মশার বিস্তার রোধে এখন থেকেই যে কার্যক্রম গ্রহণ করা দরকার সে বিষয়ে সর্বাত্মক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ তিনি দিয়েছেন। ধর্ম ব্যবসায়ী বা অপব্যাখাকারীদের বিষয়েও তিনি দেশবাসীকে সতর্ক করে দিয়েছেন। বহির্বিশ্বের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা হবে, এটা কোনো দুর্বলতা নয়। এটা আমাদের কৌশল। এ বিষয়গুলো প্রধানমন্ত্রী বলেছেন।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেছেন, ‘আসলে প্রধানমন্ত্রী সত্য ভাষণ বিএনপির গাত্রদাহের কারণ। প্রধানমন্ত্রী সত্য কথা বলেছেন, সত্য কথা বলার সৎ সাহস তার আছে এবং ভুলভ্রান্তি সিকার করারও সাহস তার আছে। যেখানে অপরাধ হয়েছে সেখানে অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, বর্তমান সংসদের এক বছর পূর্তি উপলক্ষে জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া ভাষণে জাতি হতাশ ও ক্ষুব্ধ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ভাষণের প্রতিক্রিয়ায় বুধবার (৮ জানুয়ারি) সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ কথা বলেন।

এমইউএইচ/জেএইচ/এফআর/এমকেএইচ/এমএস

টাইমলাইন