চসিক মেয়রের পিএস’র মামলায় কারাগারে করদাতা পরিষদের সভাপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৫:৫৫ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২২

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরীর ব্যক্তিগত সহকারী মো. মোস্তফা কামাল চৌধুরী দুলালের করা ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে দায়ের করা মামলায় করদাতা সুরক্ষা পরিষদের সভাপতি নুরুল আবছারকে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) সকালে চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মোহাম্মদ জহিরুল কবির তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে নুরুল আবছার আইনজীবীদের মাধ্যমে আদালতে আত্মসমর্পণপূর্ব জামিন আবেদন করেন। গত ১৯ সেপ্টেম্বর চান্দগাঁও থানায় মামলাটি করেছিলেন মোস্তফা কামাল চৌধুরী দুলাল।

আদালতে নুরুল আবছারের আইনজীবী সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি অ্যাডভোকেট আখতার কবীর চৌধুরী জাগো নিউজকে বলেন, নুরুল আবছার আদালতে আত্মসমর্পণপূর্বক জামিন আবেদন করেছিলেন। আদালত শুনানি শেষে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম মহানগরীতে হোল্ডিং ট্যাক্স কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেওয়ার বিরুদ্ধে করদাতা সুরক্ষা পরিষদের ব্যানারে প্রতিবাদ জানানো হয়। তিনি সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন। নুরুল আবছার নগরের সদরঘাট থানাধীন কদমতলী এলাকার আবুল খায়ের মেম্বার বাড়ির হাজী আবুল খায়ের মেম্বারের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, মামলার আবেদনে বাদী চসিক মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী মোস্তফা কামাল চৌধুরী দুলাল উল্লেখ করেছেন, তিনি অনলাইনে একটি প্রতিবেদন পড়েন। প্রতিবেদনটিতে গত ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬টার দিকে নগরীর পশ্চিম মাদারবাড়ী এলাকায় চট্টগ্রাম করদাতা সুরক্ষা পরিষদ নামক সংগঠনের ব্যানারে আয়োজিত সমাবেশ থেকে সংগঠনটির সভাপতি নুরুল আবছার চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরীকে উদ্দেশ্য করে অশ্লীল ভাষায় বক্তব্য দেন বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

মামলার আসামি নুরুল আবছার ইচ্ছাকৃতভাবে জনসমক্ষে মানহানিকর, হুমকিমূলক বক্তব্য দেন এবং তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক প্রচার হওয়ায় একজন প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদাপ্রাপ্ত নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি তথা চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়রের চরম মর্যাদাহানি হয়। মেয়রের নিরাপত্তা চরম হুমকির মুখে পড়ে মামলার আবেদনে উল্লেখ করেন বাদী দুলাল।

এতে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সুনাম ক্ষুণ্ন হয়েছে বলেও দাবি করা হয়।

নুরুল আবছারের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আখতার কবীর চৌধুরী বলেন, মেয়রের পিএসের দায়ের করা ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের মামলায় করদাতা সুরক্ষা পরিষদের সভাপতি নুরুল আবছারকে হাইকোর্ট ছয় সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছিলেন। হাইকোর্টের জামিনের মেয়াদ শেষে চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনালে আত্মসমর্পণ করে তিনি জামিন আবেদন করেন বলে জানান।

ইকবাল হোসেন/এমআইএইচএস/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।